পলাশকান্তি মণ্ডল, নদিয়া-বৃহস্পতিবার রাতে পাক সেনার গুলিতে নিহত হয়েছেন বাংলার জওয়ান সুবোধ ঘোষ। কালীপুজোর আগে বাড়িতে এই মর্মান্তিক খবর পৌঁছতেই শোকস্তব্ধ গোটা গ্রাম। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সুবোধ ঘোষের বদলার আহ্বান জানিয়ে শনিবার দীপাবলির প্রদীপ জ্বলেনি গ্রামে। সেনা জওয়ান একমাত্র পুত্র সন্তানের মৃত্যুতে দিশেহারা পরিবার। সেই শহিদ পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দিলেন স্থানীয় বিধায়ক গৌরী শঙ্কর দত্ত।

আরও পড়ুন-রঙ বেরঙের মাটির প্রদীন-খেলনায় মজেছে পুরুলিয়া, 'ভোকাল ফর লোকাল' কর্মসূচি বিজেপির

কাশ্মীরে বারমুলা সেক্টরে পাক সেনার গুলিতে নিহত হয়েছিলেন নদিয়ার তেহট্টের বাসিন্দা সুবোধ ঘোষ। ঘরের ছেলের দেহ পাক সেনার গুলিতে ঝাঁঝরা হয়েছে। শহিদের কফিনবন্দি দেহ ফেরার অপেক্ষা গোটা রঘুনাথপুর গ্রাম। একমাত্র ছেলের মৃত্যুতে দিশেহারা অবস্থার সুবোধের বাবার। এই অবস্থায় শহিদ সুবোধের পরিবারের সঙ্গে দেখা করলেন তেহট্টের বিধায়ক গৌরী শঙ্কর দত্ত।

আরও পড়ুন-'শুভেন্দু যে দলেই থাকুন, তাঁর বামপন্থী খুনের ক্ষমা নেই', বিস্ফোরক সিপিএম নেতা শতরূপ ঘোষ

শনিবার শহিদ জওয়ান সুবোধের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন তিনি। বেশ কিছুক্ষণ কথাও বলেন। রাজ্য সরকার সবসময় শহিদদের পাশে আছে বলে আশ্বাস দেন তিনি। জানাগেছে, খুব কম বয়সে নিজের যোগ্যতায় ভারতীয় সেনা বাহিনীতে যোগদান করেছিলেন সুবোধ ঘোষ। গত চার বছর ধরে সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়ে বীরত্বের প্রমাণ দিয়েছেন সুবোধ। গত বছর বিয়ে হয়েছিল তাঁর। তিন মাসের কন্যা সন্তানও আছে সুবোধের। স্বামীর মৃত্যুর খবর শুনে শোকস্তব্ধ স্ত্রী অনিন্দিতা। এই পরিস্থিতিতে অসহায় পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দিলেন তেহট্টের বিধায়ক গৌরীশঙ্কর দত্ত।