আশিষ মণ্ডল, বীরভূম: করোনা আতঙ্কের মাঝেই ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরছে রাজ্য। আনলক পর্বে খুলে গিয়েছে একাধিক মন্দিরও। তারাপীঠ কবে খুলবে? প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রী বৈঠকের আগে সিদ্ধান্ত নিয়ে রাজি নয় মন্দির কমিটি। ২০ জুন ফের বৈঠক হবে।

আরও পড়ুন: সোমবার থেকেই খুলছে বেলুড় মঠ, জানুন প্রবেশের জন্য় বয়েস সীমা সহ একাধিক নয়া নির্দেশিকা

দেখতে দেখতে তিন মাস হয়ে গেল। করোনা সতর্কতায় ১৯ মার্চ থেকে বন্ধ তারাপীঠ মন্দির। ভক্তদের মন্দিরে প্রবেশের ক্ষেত্রে জারি করা হয়েছে নিষেধাজ্ঞা। তবে নিত্যপুজোয় অবশ্য ছেদ পড়েনি। আনলকে পর্বে মন্দির খুলবে কিনা, তা নিয়ে সংশয় ছিলই। কারণ, মুখ্যমন্ত্রী যখন পয়লা জুন থেকে এ রাজ্যে মন্দির-মসজিদ-গির্জা খোলার কথা জানিয়েছিলেন, তখন বৈঠকে বসেন তারাপীঠের মন্দির কমিটি সদস্যরা। কিন্তু অচলাবস্থা কাটেনি, বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, মন্দির যেমন বন্ধ ছিল, তেমনি থাকবে। ১৪ জুন দ্বিতীয় দফায় বৈঠকে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। সেইমতো রবিবার ফের বৈঠক হয়। বৈঠকে হাজির ছিলেন মন্দির কমিটির সভাপতি তারাময় মুখোপাধ্যায়, সম্পাদক ধ্রব চট্টোপাধ্যায় ও বেশিরভাগ সেবাইতই।

আরও পড়ুন: একমাত্র 'করোনা অ্যাম্বলেন্স' চালকের মৃত্যু, মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় শোকস্তব্ধ কোলাঘাট

কী সিদ্ধান্ত হল? তারাপীঠ মন্দির কমিটি সভাপতি তারাময় মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন,  'অধিকাংশ সেবাইতেরই মত, রাজ্যের যে হারে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে, তাতে ফের লকডাউন জারি করা হতে পারে। তাই ১৭ জুন প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রী বৈঠকের পর  সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।' পরিস্থিতি এমনই যে, মন্দির খুললে গোষ্ঠী সংক্রমণের আশঙ্কাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না সেবাইত পুলক চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, 'তারাপীঠে পূর্ণ্যার্থীদের চাপ আছে। কলকাতা, হাওড়া ও উত্তর ২৪ পরগণা থেকে বেশিরভাগ ভক্ত আসেন। ওই সমস্ত জায়গায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। ওখান থেকে কেউ পুজো দিতে এলে, এখানেও গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়ে যাবে। তাই আমার এখনই মন্দির না খোলার পক্ষেই মত দিয়েছি।'