তক্ষক  উদ্ধার করে বিপদ বাড়ল পুলিশের। খাবার জোগাড় না করতে পারায় মারা গিয়েছে একটি। বেগতিক দেখে রায়গঞ্জে আইনশৃঙ্খলার দায়িত্ব ছেড়ে এখন আরশোলা খুঁজে বেড়াচ্ছে পুলিশ।

মনীষীদের মান দিয়েছেন মমতা, দিলীপকে পাল্টা ফিরহাদের

রবিবারই অভিযান চালিয়ে পাচারের সময় তিনটি তক্ষক উদ্ধার  করে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। পরে থানায়  নিয়ে আসার পরে তার মধ্যে একটি তক্ষক মারা যায়। বাজেয়াপ্ত করা তক্ষকগুলিকে আদালতের মাধ্যমে বনদফরের হাতে তুলে দিতে সময়  লাগবে। সেই কারণে আইন শৃঙ্খলার দেখভাল ছেড়ে এখন শহরের বিভিন্ন প্রান্তে বাসিন্দাদের বাড়িতে গিয়ে আরশোলা ধরার জন্য অভিযান শুরু করেছে পুলিশ।

দোল নিয়ে দুশ্চিন্তায় শান্তিপুর, ইতিমধ্য়েই এসে হাজির বিদেশিরা

গতকাল মাদক ও তক্ষক  উদ্ধারে বড়সড় সাফল্য পায় রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। রায়গঞ্জ থানার বাজিতপুর এলাকা থেকে আনুমানিক ৬৪ লক্ষ টাকার জিনিস বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ। গ্রেফতার করা হয়েছে এক ব্যাক্তিকে। ধৃত ব্যাক্তিকে রায়গঞ্জ আদালতে তোলা হয়েছে। 

অধীরের খাসতালুকে তৃণমূলের অন্তর্দ্বন্দ্ব, কোন্দল মেটাতে মাঠে প্রশান্ত কিশোর

বিভিন্ন সময়ে রায়গঞ্জ শহর ও শহর সংলগ্ন এলাকায় নিষিদ্ধ ড্রাগ অভিযান চালিয়েছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। সপ্তাহ দুয়েক আগে এক তৃণমূল কংগ্রেস কাউন্সিলরের তৎপরতায় রায়গঞ্জ শহরের শক্তিনগর এলাকা থেকে বেশ পরিমাণে ব্রাউন সুগার সহ দুই মহিলাকে গ্রেফতার করেছিল রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। এবার গোপন সূত্রে খবর পেয়ে রায়গঞ্জ থানার আই সি সুরজ থাপার নেতৃত্বে বিশাল পুলিশবাহিনী রায়গঞ্জের বাজিতপুর এলাকায় তল্লাশি অভিযান চালিয়ে এক বাড়ি থেকে ৩ টি তক্ষক, ২ হাজার ইয়াবা নিষিদ্ধ ড্রাগ ট্যাবলেট এবং ১০৮ গ্রাম ব্রাউন সুগার উদ্ধার করে। 

যার আনুমানিক বাজার মূল্য প্রায় ৬৪ লক্ষ টাকা।  ঘটনাস্থল থেকে নজরুল ইসলাম নামে কালিয়াগঞ্জের এক বাসিন্দা পাচারকারীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। রায়গঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার সুমিত কুমার বলেন, ধৃত ব্যাক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এই পাচারচক্রের সাথে যুক্ত রয়েছে কিনা তার খোঁজ করা হচ্ছে।