শ্রাদ্ধানুষ্ঠানে জয় শ্রীরাম ধ্বনি দেওয়ার অভিযোগ। আর তার জেরেই শ্রাদ্ধবাড়িতে ঢুকে তাণ্ডব চালানোর অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ঘটনায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে নাকাশিপাড়া থানায়। 

ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার নাকাশিপাড়া থানার কাচকুলি গ্রামের। জানা গিয়েছে, ওই গ্রামেরই বাসিন্দা এক বৃদ্ধা সন্ধ্যা আচার্য কয়েকদিন আগে মারা যান। শুক্রবার তাঁর নিজের বাড়িতে শ্রাদ্ধানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। শ্রাদ্ধানুষ্ঠানের সময় সেখানে কীর্তনও চলছিল। পরিবারের সদস্যদের দাবি, কীর্তনের তালে তালেই সেখানে উপস্থিত কয়েকজন কিশোর জয় শ্রীরাম ধ্বনি দেয়। 

আরও পড়ুন- খেলায় জিতে কেন জয় শ্রীরাম, ছাত্রদের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র স্কুল, দেখুন ভিডিও

অভিযোগ, শ্রাদ্ধের সময় কেন জয় শ্রীরাম ধ্বনি দেওয়া হল, এই অভিযোগ তুলে বেশ কয়েকজন তৃণমূল কর্মী সমর্থক কিছুক্ষণ পরেই ওই শ্রাদ্ধ বাড়িতে হামলা চালায়। শ্রাদ্ধের জিনিসপত্র নষ্ট করার পাশাপাশি পরিবারের কয়েকজন সদস্যকেও মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। এমন কী, মহিলাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করার অভিযোগ উঠেছে। হামলার জেরে শ্রাদ্ধানুষ্ঠানই প্রায় পণ্ড হয়ে যায়। গোটা ঘটনায় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধেই অভিযোগ করেছেন পরিবারের সদস্যরা। পরে এলাকারই পাঁচ তৃণমূল নেতা, কর্মীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করে ওই পরিবার। 

আরও পড়ুন- 'অমর্ত্য সেনের জ্ঞানে কিছু যায় আসে না', দিলীপের রোষে নোবলজয়ী অর্থনীতিবিদ, দেখুন ভিডিও

এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এ দিন বিজেপি-র নদিয়া উত্তরের জেলা সভাপতি মহাদেব সরকার দলীয় নেতাদের নিয়ে আক্রান্ত পরিবারটির সঙ্গে দেখা করেন।  হামলার তীব্র নিন্দা করে দোষীদের শাস্তির দাবি করেন তিনি। যদিও, নাকাশিপাড়ার তৃণমূল বিধায়ক কল্লোল খাঁ দাবি করেন, এই ঘটনার সঙ্গে রাজনীতির কোনও যোগ নেই, বিজেপি ইচ্ছে করেই এতে রাজনৈতিক রং লাগাচ্ছে। ঘটনার তদন্তে নামলেও এখনও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। 

জয় শ্রী রাম বলায় শ্রাদ্ধের অনুষ্ঠান বাড়িতে ঢুকে হামলা চালায় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা।এই ঘটনায় 5 জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয় নাকাশীপাড়া থানায়। অভিযোগ, নাকাশীপাড়া থানার কাঁচকুলি গ্রামের বাসিন্দার বৃদ্ধা  ওই অনুষ্ঠানের সময় কয়েকজন শিশু জয় শ্রী রাম বলার অপরাধে সন্ধ্যার সময় প্রায় পনেরো থেকে কুড়ি জনের দুষ্কৃতী দল বাড়িতে ঢুকে হামলা চালায়। ভাঙচুর করা হয়  বাড়ির শ্রাদ্ধের একাধিক জিনিসপত্র। মারধর করা হয় পরিবারের সদস্যকে।এমন কি মহিলাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করতে ও ছার দেননি দুষ্কৃতীরা। অভিযোগ দায়ের করা হয় নাকাশীপাড়া থানায়। এর সঙ্গে তৃণমূলের কোন যোগ নেই ।এই ঘটনার তদন্তে নাকাশিপাড়া থানার পুলিশ।