'দিদিকে বলো'-র প্রচার গিয়ে মদের আসরের প্রতিবাদ করায় দুষ্কৃতী হামলার শিকার হলেন শিলিগুড়ি পুরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর দূর্গা সিং। শুধু কাউন্সিলরই নন, তাঁর বাবা এবং প্রাক্তন কাউন্সিলর অমরনাথ সিংকেও দুষ্কৃতীরা মারধর করে অভিযোগ। বর্তমানে তিনি শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এই ঘটনায় দু' জনকে গ্রেফতার করেছে শিলিগুড়ি থানার পুলিশ। ঘটনায় বিজেপি-র দিকেই অভিযোগেই আঙুল তুলেছে শাসক দল। 

রবিবার বিকেলে 'দিদিকে বলো'-র প্রচারে বেরিয়েছিলেন স্থানীয় কাউন্সিলর দুর্গা সিং ও তাঁর বাবা প্রাক্তন কাউন্সিলর অমরনাথ সিং। প্রচারের সময় তাঁদের নজরে আসে, এলাকায় মদের আসর বসিয়েছে কয়েকজন যুবক। অভিযোগ, এলাকায় মদের আসরের প্রতিবাদ করতেই কাউন্সিলর এবং তাঁর বাবার উপরে চড়াও হয় দুষ্কৃতীরা। দু'জনকেই শারীরিক নিগ্রহ করা হয় বলে অভিযোগ।  ঘটনায় গুরুতর আহত হন অমরনাথবাবু। গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে পরে শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মঙ্গলবার দুপুরে তাঁর শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিতে যান পর্যটন মন্ত্রী তথা দার্জিলিং জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি গৌতম দেব।

নিগৃহীত কাউন্সিলর দুর্গা সিং অভিযোগ করে বলেন, গুড্ডু সিং নামে এক দুষ্কৃতী ও তার দলবল তাঁদের উপর আক্রমণ চালায়। শুধু তাই নয়, তাঁর কাছে থাকা সোনার গয়না এবং অর্থও লুঠপাট করা হয়েছে বলে অভিযোগ দুর্গাদেবীর। আহত অমরনাথবাবু অবশ্য স্বীকার করে নিয়েছেন, এলাকায় তৃণমূলের পায়ের তলার মাটি সরে যাওয়ার সুযোগ নিয়েই বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে।  এ বিষয়ে মন্ত্রী গৌতম দেব বলেন, 'বিজেপি যে ভাষা বোঝে তাদের সেই ভাষাতেই বোঝানো হবে। এসব বরদাস্ত করা হবে না।' 

অভিযোগ অস্বীকার করে বিজেপি-র শিলিগুড়ি জেলা কমিটির সভাপতি অভিজিৎ রায় চৌধুরী বলেন, 'জমি দখলের কাজে গিয়ে স্থানীয়দের হাতে প্রহৃত হয়েছেন তৃণমূল কাউন্সিলর এবং তাঁর বাবা। এই ঘটনা ধামাচাপা দিতেই বিজেপি-র উপরে দায় চাপানোর চেষ্টা চলছে।'