আশিষ মণ্ডল, বীরভূম: চাপের মুখে ড্যামেজ কন্ট্রোলের চেষ্টা? আগামী বিধানসভা ভোটে রামপুরহাট কেন্দ্রে এবার সেই 'অপদার্থ' কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রার্থী ঘোষণা করলেন অনুব্রত মণ্ডল। রীতিমতো গুনগান করলেন মন্ত্রীর।

আরও পড়ুন: ফ্যাক্ট চেকে দিলীপ ঘোষের শেয়ার করা ছবি, সেটি মিথ্যা বলে দাবি তৃণমূলের

ঘটনার সূত্রপাত শুক্রবার। সেদিন রামপুরহাট ১ নম্বর ব্লকের আয়াস, নারায়ণপুর ও কুসুম্বা অঞ্চলে দলের বুথকর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করেন তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। স্থানীয় আয়াস অঞ্চলের ৪০ নম্বর বুথে লোকসভা ভোটে বিজেপি প্রার্থী লিড নিয়েছিলেন ৭১১ ভোটে। কেন এতো ভোটে হার? অনুব্রতের প্রশ্নের মুখে বুথ সভাপতির সোজাসাপ্টা জবাব ছিল, 'আমরা আগে কংগ্রেস করতাম। কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে তৃণমূলের যোগ দিয়েছি। কিন্তু তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পর এলাকায় কোনও উন্নয়ন হয়নি। ভোট জানতে গেলে মানুষ রাস্তা আর পানীয় জলের দাবি জানাচ্ছেন।' এরপর আর মেজাজ ধরে রাখতে পারেননি অনুব্রত মণ্ডল। ভরা কর্মিসভায় 'অপদার্থ' বলে কটাক্ষ করেন কৃষিমন্ত্রীকে। যা নিয়ে তৃণমূলের অন্দরে বিতর্ক কম হয়নি।

আরও পড়ুন: লোকাল ট্রেন চালুর দাবি, হুগলিতে দুটি স্টেশনে বিক্ষোভ নিত্যযাত্রীদের

শনিবার দখলবাটি, বড়শাল ও বনহাট অঞ্চলের বুথকর্মীদের সম্মেলনে ভোল পাল্টে গেল অনুব্রত মণ্ডলের।  সম্মেলনের শুরুতেই দখলবাটি অঞ্চল সভাপতি কুবির শা জানিয়ে দেন, এলাকার কুড়ি বুথের মধ্যে ন'টিতে লোকসভা ভোটে এগিয়ে ছিলেন বিজেপি প্রার্থী। জেলা সভাপতির বক্তব্য,  'কেন হারলাম? এবার ভোটটা হবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। দিদির প্রার্থী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়। ভালো মানুষ, কাজের মানুষ। এটা মানুষকে বোঝাচ্ছেন তো?' আর এক বুথ সভাপতির কাছে অনুব্রতের প্রশ্ন, 'কেন ২৭০ ভোটে হারলেন? লোকটা খারাপ? লোকটা মানুষের উপকার করে না? মানুষের কাছে যায় না? লোকটা তো খারাপ নয়।' এমনকী, কৃষিমন্ত্রীকে যে অপদার্থ বলেছিসেন, তাও অস্বীকার করেন অনুব্রত।