Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Gangasagar Mela: 'বিভাজনের রাজনীতিতে বিশ্বাসী BJP', গঙ্গাসাগর মেলা পরিদর্শনের পথে তোপ ফিরহাদের

গঙ্গাসাগর মেলা পরিদর্শন ফিরহাদ হাকিমের।  সমস্ত ব্যবস্থা কতটা পাকা করা হয়েছে, সরেজমিনে তা দেখার জন্য এদিন গঙ্গাসাগরে পাড়ি ফিরহাদ হাকিমের।  

TMC Leader Firhad Hakim has visited Gangasagar on the instruction of CM Mamata Banerjee and He attacks BJP RTB
Author
Kolkata, First Published Jan 13, 2022, 2:16 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

গঙ্গাসাগর মেলা পরিদর্শন ফিরহাদ হাকিমের।  সমস্ত ব্যবস্থা কতটা পাকা করা হয়েছে, সরেজমিনে তা দেখার জন্য এদিন গঙ্গাসাগরে পরিদর্শনে ফিরহাদ হাকিম। মুখ্যমন্ত্রীর ( CM Mamata Banerjee) নির্দেশ মেনে লট এইট এবং তৎসংলগ্ন এলাকা কী কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে রাজ্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে তা খতিয়ে দেখতে গঙ্গাসাগর মেলা গেলেন রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম ( TMC Leader Firhad Hakim)।

রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেছেন, করোনা সংক্রমনের মধ্যে গঙ্গাসাগরের মত এত বড় উৎসব কে যথাসম্ভব সংক্রমণ ভাবে সম্পন্ন করা রাজ্য সরকারের কাছে একটা বড় চ্যালেঞ্জ।মহামান্য  হাইকোর্টে এ বিষয়ে নির্দেশ দিয়েছেন।  তাই ১০০ শতাংশ না করা সম্ভব হলেও যাতে ৯০ শতাংশ মানুষকে সমানভাবে গঙ্গাসাগর মেলায় ধর্মীয় আচার আচরণ করে ফিরতে পারে, তা সুনিশ্চিত করতে একাধিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে একদিকে যেমন রাজ্য প্রশাসন অন্যদিকে সংসদ নেতা মন্ত্রীরা ও বিভিন্ন বিষয়ে খতিয়ে দেখার জন্য এই মুহূর্তে গঙ্গাসাগর মেলা বিভিন্ন এলাকায় রয়েছেন, বলে এদিন জানালেন ফিরহাদ। তিনি আরও বলেছেন, রাজ্যের তথা দেশের বিরোধী দল বিজেপি কাজের থেকে সমালোচনা নিয়েই বেশি পারদর্শী হয়ে উঠেছে। মহামান্য হাইকোর্ট যখন গঙ্গাসাগর নিয়ে রায় দান করলেন, শুনানি চালাচ্ছিলেন, তখন কেন তাঁরা উঠে পিটিশন দিয়ে তাঁদের বক্তব্য জানালেন না। আসলে ওরা জাতপাত,ধর্ম, বর্ণ ,ভাষা,সংস্কৃতি সব নিয়ে ডিভিশনের রাজনীতিতে বিশ্বাসী। এটা ভারতবর্ষের কালচার নয়। তাই দিলীপ ঘোষেরা কী বললেন সেটা কারওর দেখার বিষয় নয়।'

আরও পড়ুন, গঙ্গাসাগর থেকে অগ্নিদগ্ধ মহিলাকে নিয়ে হাওড়ায় পৌছল এয়ার অ্যাম্বুলেন্স, ভর্তি করা হল হাসপাতালে

 ফিরহাদ আরও বেলন, 'এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিভিন্ন বিষয়ে যে সদর্থক ভূমিকা নিয়ে চলেছেন বা চলেন এবং সকলকে একসাথে নিয়ে চলার থাকার যে দিশা দিয়েছেন তাই মানুষ গ্রহণ করেছে। ইউনিটি এবং ডাইভারসিটি আমার দেশের মূলমন্ত্র আর সেটাকেই বাস্তবায়িত করার পথে চলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ওরা যে সমালোচনা করে তা এদেশের মানুষ কখনই গ্রহণ করে না। সেই কারণে যত দিন যাচ্ছে মানুষের থেকে বিজেপি বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। ভোটের প্রচারে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশ এবং করোনা বিধি কোনটাই মানছে না, এটা ঠিক নয়। ওদের পাশে সাধারণ মানুষ নেই,। ওরা মনে করছে আগের মত বিহার, উত্তরপ্রদেশ থেকে লোক এনে এখানে ভিড় জমাবে। কিন্তু ওদের মত বুঝতে হবে আর আগের মতো পরিস্থিতি নেই, এখন ডাকলে লোক পাবে না ওরা। আগামী দিনে দেশের মসনদ থেকে ওদের যাবার সময় এসে গেছে সেটা ওদের বোঝা উচিত,' ফের বিজেপিকে কটাক্ষ ফিরহাদের।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios