কলেজের পরিচালন সমিতি ও ছাত্র সংসদের মধ্যে  মতবিরোধের জের। বনগাঁ দীনবন্ধু মিত্র কলেজে টিএমসিপি সমর্থকদের ওপর হামলার অভিযোগ। অভিয়োগের তির এবিভিপি ছাত্রদের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, বহিরাগতরা ভাঙচুর চালায় কলেজের একাধিক বিভাগে ।  ছাত্র সংসদের এক গোষ্ঠীর দাবি, গত শনিবার ১৮ জানুয়ারি কলেজে নতুন পরিচালন সমিতির নির্দেশে সরস্বতী পুজো ও কলেজের অনুষ্ঠানের নতুন কমিটি তৈরি হয় । এর বিরোধিতায় ছাত্র সংসদের এক গোষ্ঠী কলেজ চত্বরে বিক্ষোভ দেখায় মঙ্গলবার । 

 অভিযোগ সেই সময় অপর পক্ষের বহিরাগত কিছু ছাত্র এসে কলেজের বাণিজ্য ও বিজ্ঞান বিভাগে ব্যাপক ভাঙচুর চালায় ও মারধর করে। ভাঙচুর করা হয় কলেজের সিসিটিভি ক্যামেরা । এছাড়াও দু'পক্ষের মধ্যে গন্ডগোলের ফলে আহত হয়েছে বেশকিছু ছাত্র-ছাত্রী । এ ব্যাপারে কলেজের প্রিন্সিপাল ডক্টর বিশ্বজিৎ ঘোষ জানান, সরস্বতী পূজার কমিটি নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে । কারা ভাঙচুর করেছে সে বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না ।

তৃণমূল ছাত্র পরিষদের তরফে বলা হয়েছে, কলেজে এই হামলার পিছনে এবিভিপি বা বিজেপির যোগ থাকতে পারে। প্রশ্ন উঠেছে, কলেজে আইকার্ড ছাড়া কীকরে একসঙ্গে প্রচুর বহিরাগত ঢুকে গেল? তা নিয়ে অবশ্য় কিছু বলতে পারছেন না তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্যরা।  

রাজ্য়ের সাম্প্রতিক অতীত বলছে, কলেজে কলেজে বিভিন্ন মতাদর্শের ছাত্র ইউনিটে সংঘর্ষ নতুন নয়। নিজেদের রাজনৈতিক প্রভাব বজায় রাখতে এই ধরনের ঘটনায় রাজনৈতিক ইন্ধন থাকে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে শাসক দলের ছাত্র সংগঠনই রাজ্য়ের ছাত্র ইউনিটগুলির মাথায় থাকে।