বারাকপুর বিজেপি নেতা খুনে নয়া তথ্য পেল পুলিশ। তাঁদের দাবি, কোনও রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বিতায় খুন করা হয়নি বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লাকে। পুরনো ও ব্যক্তিগত শত্রুতার জেরে খুন করা হয়েছে তাঁকে। ঘটনায় জড়িত দুজনকে গ্রেফতার করার পর এমনটাই দাবি করল পুলিশ।

আরও পড়ুন-হাথরস-কাণ্ডে রণংদেহি উত্তরপ্রদেশ পুলিশ, বিরোধী নেতা-সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলা

বিজেপি নেতা খুনে মহম্মদ খুররম ও গুলাব শেখ নামে দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সিসিটিভিতে দুষ্কৃতীদের ছবি চিহ্নিত করে ওই দুই জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পারে, পেশায় ব্যবসায়ী মহম্মদ খুররম। খুররমের সঙ্গে ব্যবসায়ীক সংক্রান্ত পুরনো শত্রুতা ছিল মণীশ শুক্লার। সেই পুরনো শত্রুতার জেরেই মণীশকে খুন করে মহম্মদ খুররম।

আরও পড়ুন-সব হুমকির জবাব দিতে সর্বদা প্রস্তুত ভারত, চিনকে হুঁশিয়ারী ভারতীয় বায়ুসেনা প্রধানের

তদন্তে নেমে গোয়েন্দারা আরও জানতে পেরেছে, মণীশ ও খুররমের শত্রুতার বিষয় এলাকায় বিশেষভাবে চর্চিত। খুররমের বাবা সিপিএম নেতা ছিলেন। তিনিও খুন হন। সেই ঘটনায় নাম জড়িয়েছিল মণীশ শুক্লার। এরপরই মণীশের সঙ্গে পুরনো আক্রোশ মেটাতে গুলাব শেখ নামে সুপারি কিলারের সঙ্গে যোগাযোগ করে মহম্মদ খুররম। প্রসঙ্গত, রবিবার এই ঘটনার পরের দিনই রাজনৈতিক সংঘর্ষে মণীশ শুক্লা খুন হননি বলে দাবি করেছিল পুলিশ।