বড়দিনের বৃষ্টির পর থেকেই শীতের প্রভাব আরও বেড়েছে। রাতের দিকে তাপমাত্রা কমার পাশাপাশি চলছে হিমেল হাওয়ার দাপট। পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় রয়েছে শৈত্যপ্রবাহের সতর্কতাও, জানিয়েছেন আলিপুর আবহাওয়া দফতর। বৃহস্পতিবার থেকে কলকাতা সহ রাজ্যের প্রায় সব জেলাতেই মেঘলা আকাশ থাকার সম্ভাবনা। কয়েক দফায় হালকা মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলাগুলিতে। ভারী বৃষ্টি হতে পারে পশ্চিমের জেলাগুলির দু এক জায়গায়ও। পার্বত্য এলাকাগুলিতে শিলা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বৃহস্পতিবার পূর্ব ভারতের সব রাজ্যে বৃষ্টি শুরু হবে।

আরও পড়ুন- হাজার হাজার পরিযায়ীর ভিড়, শীতে অন্য রকম অভিজ্ঞতা হবে ব্যান্ডেলের ঝিলে

শুক্রবারও বৃষ্টি চলবে বলে পূর্বাভাস আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর। বৃষ্টির ধারা জারি থাকতে পারে শনিবার অবধি। আকাশ পরিষ্কার হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে রবিবারে। মেঘলা আকাশ থাকার কারণে কাল থেকেই সামান্য বাড়তে পারে তাপমাত্রা। শীতল দিনের পরিস্থিতি উত্তরবঙ্গে। বছরের শীতলতম দিন দার্জিলিং জলপাইগুড়ি মালদা ও দুই দিনাজপুরে। আরও জাঁকিয়ে ঠান্ডা পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। মঙ্গলবার থেকে পারদ ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার সম্ভাবনা। বুধবার আকাশ মেঘলা থাকার আশঙ্কা। রাত ও দিনের তাপমাত্রা দুটোই বেশ কিছুটা বৃদ্ধি পেতে পারে। বুধবার হালকা বৃষ্টি হবে উত্তরবঙ্গে মালদা ও দুই দিনাজপুরে। দক্ষিণবঙ্গের পশ্চিমের জেলা পুরুলিয়া বাঁকুড়া পশ্চিম বর্ধমান বীরভূম ও মুর্শিদাবাদের বৃষ্টির পূর্বাভাস।

আরও পড়ুন- সন্ত্রাসবাদীদের জন্য মিছিল করতে হলে ওপারে যান, দিদিকে হুমকি দিলীপের

জেলাগুলির তাপমাত্রা-

কোচবিহার ৬.২
দার্জিলিং ৪.৪
জলপাইগুড়ি ৬.৮ 
মালদা ৮.২ 
শিলিগুড়ি ৪.৭
আসানসোল ৮.৯
বাঁকুড়া ৯.৬ 
বারাকপুর ১০.৮
বর্ধমান ৯ 
ক্যানিং ১১
কাঁথি ৭.৫ 
ডায়মন্ডহারবার ১১ 
দীঘা ৯.৯ 
হলদিয়া ১১.৫ 
কলাইকুন্ডা ৯ 
মেদিনীপুর ৯.৫ 
পানাগড় ৭.৬ 
শ্রীনিকেতন ৭.৫