এবার গোটা বাংলা জুড়ে নিষিদ্ধ হতে চলেছে গুটখা, পানমশলা সহ সমস্ত তামাকজাত দ্রব্য, নয়া ঘোষণা রাজ্য সরকারের। সম্প্রতি ফুড সেফটি কমিশনারের পক্ষ থেকে একটি নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। চলতি মাসের ৭ নভেম্বর থেকে তামাকজাত কোনও দ্রব্য বিক্রি করা যাবে না। আগামী ৭ নভেম্বর ক্যানসার সচেতনতা দিবস। গুটখা, তামাক  সেবনের ফলে ক্যানসারের সম্ভাবনা প্রবল বেড়ে যায়। তাই এই বিশেষ দিনটিকেই বেছে নেওয়া হয়েছে নিষেধাজ্ঞা জারি দিবস হিসেবে।

আরও পড়ুন-হাতে রয়েছে আর মাত্র কয়েকটা দিন, ভোটার কার্ডে ভুল থাকলে সংশোধন করুন এখনই...

স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রের খবর, গত তিন-চার বছর ধরেই রাজ্যের তরফে এই বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। কারণ 'চিউয়িং টোব্যাকো' আইন মোতাবেক খাদ্য সামগ্রীর তালিকাভুক্ত। তাই এক বছরের বেশি নিষিদ্ধ করা যায় না। প্রতি বছর 'রিনিউ' করতে হয় এই নিষেধাজ্ঞার। সেই কারণের জন্যই মাত্র এক বছরের জন্য এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। আগামী বৃহস্পতিবার থেকে এক বছরের জন্য রাজ্যে সমস্ত গুটখা, পানমশলার উৎপাদন, মজুত এবং বিক্রি বন্ধ থাকবে। রাজ্যবাসীর স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই আইন অমান্য করলেই অপরাধ হিসেবে মিলবে শাস্তি।

 

আরও পড়ুন-মধ্যবিত্তের মাথায় হাত, ফের বাড়ল রান্নার গ্যাসের দাম...

২০১১ সালেই গুটখা, তামাকযুক্ত পানমশলা, নিষিদ্ধ করার পরামর্শ দেয় কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। সেই আইন বাঁচিয়েও উৎপাদনও বিক্রি হয়েই আসছিল। যার ফলে প্রতিনিয়ত বেড়েই চলছিল ওরাল ক্যানসার। ক্যানসার মোকাবিলায় এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। ক্যানসার রোগীদের মধ্যে ওরাল ক্যানসারের শিকার এক তৃতীয়াংশ। তাই গুটখা, পানমশলা নিষিদ্ধ হলে এই ক্যানসারের দাপট অনেকটাই কমবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে নিষেধাজ্ঞার পরেও গুটখার ব্যবহার আদৌ কমে কি না, সেটাই এখন দেখার।