মা অসুস্থ। কিন্তু চিকিৎসা করানোর সামর্থ্য নেই। এই হতাশা থেকেই আত্মঘাতী হলেন এক যুবক। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর চব্বিশ পরগণার দেগঙ্গা থানার হাদিপুরে। মৃত যুবকের নাম কৃষ্ণ মণ্ডল (২৩)। 

স্থানীয় সূত্রে খবর, ন' মাস আগে মৃত যুবকের বাবা সমীর মণ্ডল নিখোঁজ হয়ে যান। কিছুদিনের মধ্যে তাঁর মা নমিতা মণ্ডলও ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে শয্যাশায়ী হয়ে পড়েন। সবমিলিয়ে সংসারে চরম অনটন নেমে আসে। 

সংসারের হাল ধরতে ভিন রাজ্যে কাজ নিয়ে চলে যান কৃষ্ণ মণ্ডল। কিন্তু মায়ের শারীরিক অবস্থার ক্রমশ অবনতি হওয়ায় বাড়ি ফিরে আসেন কৃষ্ণ। মায়ের দেখাশোনা করতে গিয়ে কোথাও কাজও করতে পারতেন না তিনি। কৃষ্ণের একটি ভাই থাকলেও তার বয়স দশের নীচে। ফলে সংসার পুরো দায়িত্বই ওই যুবকের উপরে এসে পড়ে। মায়ের দেখাশোনা করতে গিয়ে কোথাও কাজেও যোগ দিতে পারেননি তিনি। ফলে বন্ধ হয়ে যায় উপার্জন। তার উপরে মায়ের চিকিৎসার খরচের টাকা জোগাড় করতেও হিমশিম অবস্থায় হয় তাঁর। এই কারণেই মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন কৃষ্ণ। 

আরও পড়ুন- খিদেয় ছটফট করছে তিন সন্তান, ট্রেনের ছাদে উঠে ঝলসে গেলেন বাবা

আরও পড়ুন- ট্রেনের ছাদে উঠে ঝলসে গেলেন যুবক, ভয়াবহ দৃশ্যের সাক্ষী মালদহ স্টেশন, দেখুন ভিডিও

রবিবার দীর্ঘক্ষণ ধরে ওই যুবক ঘরের দরজা না খোলায় প্রতিবেশীদের সন্দেহ হয়। এর পর বিকেল চারটে নাগাদ ঘরের দরজা ভেঙে যুবকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। দেহ নামিয়ে হাড়োয়া গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে গোটা এলাকায়। দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ। কৃষ্ণর অসুস্থ মা এবং ছোট ভাইয়ের কী হবে, সেটাই এখন বুঝতে পারছেন প্রতিবেশী এবং আত্মীয়রা।