কয়েকদিন আগেই নিজেদের সংস্থার এক মুসলিম ডেলিভারি বয়ের পাশে দাঁড়িয়ে গ্রাহককেই মুখের মতো জবাব দিয়ে দেশবাসীর প্রশংসা কুড়িয়েছিল ফুড ডেলিভারি সংস্থা জোম্যাটো। এবার ধর্মীয় গেরোয় জোম্যাটোতেই ধর্মঘটের ডাক দিলেন সংস্থার ডেলিভারি বয়রা। 

একটি সর্বভারতীয় ইংরেজি সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, শুয়োর এবং গরুর মাংস দিয়ে তৈরি করা খাবারের পদ সরবরাহ করার প্রতিবাদে জোম্যাটোর ডেলিভারি বয়রা সোমবার থেকে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন। তাঁদের অভিযোগ, এই ধরনের খাবারের পদ ডেলিভারি করা তাঁদের ধর্মীয় বিশ্বাসের পরিপন্থী। সেই কারণেই ইদের আগে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন তাঁরা। এর পাশাপাশি নিজেদের পারিশ্রমিকের হার পুনর্বিন্যাসের দাবিতেও এই ধর্মঘট ডাকা হয়েছে। 

আরও পড়ুন- 'খাবারই ধর্ম'-জোমাটোর উত্তরে চাপের মুখে কী করলেন এই হিন্দু গ্রাহক

আরও পড়ুন- 'মহিলাদের স্তনের বেলায় ধর্মভেদ করেন না তো', স্বস্তিকার নিশানায় মধ্যপ্রদেশের জোম্যাটো গ্রাহক

তবে শুধুমাত্র ধর্মীয় বিশ্বাস আঘাত লাগে, এমন খাবার ডেলিভারির ক্ষেত্রেই ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছে বলে খবর। অন্যান্য খাবারের ক্ষেত্রে অবশ্য ডেলিভারি চালু থাকবে কি না, তা এখনও স্পষ্ট নয়। 

ডেলিভারি বয়দের অভিযোগ, সম্প্রতি কলকাতা এবং হাওড়ার বেশ কয়েকটি মুসলিম রেস্তোরাঁর খাবার ডেলিভারি শুরু করেছে সংস্থা। যার ফলে হিন্দু ডেলিভারি বয়দেরও গরুর মাংসের মতো পদ সরবরাহ করতে হচ্ছে। ডেলিভারি বয়দের দাবি, কিছুদিনের মধ্যে শুয়োরের মাংসের পদ সরবারহও শুরু করবে জোম্যাটো। তখন একই সমস্যায় পড়বেন মুসলিম ডেলিভারি বয়রা। এই ধরনের পদ সরবরাহ করার অর্ডার আসলে তা ক্যানসেল করলে সংস্থা সংশ্লিষ্ট ডেলিভারি বয়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয় বলে অভিযোগ।

বিষয়টি নিয়ে সংস্থায় দরবার করেও কোনও লাভ হয়নি বলে অভিযোগ তাঁদের। ডেলিভারি বয়দের দাবি, তাঁদের ন্যূনতম কোনও স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সুবিধাও দেওয়া হয় না। এই সব দাবিতে সোমবার থেকে ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সংস্থার ডেলিভারি বয়রা। 

বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যে রাজ্যের শাসক দলের কাছেও দরবার শুরু করেছেন জোম্যাটোর ডেলিভারি বয়রা। রাজ্যের মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, এই নিয়ে তাঁরা অভিযোগ পেয়েছেন। তদন্তও করা হবে। কোনও অবস্থাতেই সংস্থার কাউকে ধর্মীয় বিশ্বাসের বিরুদ্ধে যাওয়া উচিত নয় বলেও মন্তব্য করেছেন মন্ত্রী।