রেঁনেসা ফাউন্ডেশনের  সমীক্ষা অনুযায়ী ৩০ আসনের পুদুচেরি বিধানসভার দখল নিতে পারে বিজেপি ও এআইএডিএমকে জোট। বিজেপি ও তার সহযোগিরা ৩০টি আসনের মধ্যে প্রায় ২৩টি আসন দখল করতে পারে। কেন্দ্র শাসিত এই অঞ্চলে কংগ্রেস ও তার সহযোগি ডিএমকে পেতে পারে মাত্র তিনটি আসন। 

 

বেঙ্গালুরু ভিত্তের একটি সংস্থার সমীক্ষা অনুযায়ী গত বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এন রঙ্গস্বামীর দল এনআর কংগ্রেস ২৫ শতাংশ ভোট পেতে পারে। ২৪ শতাংশ ভোট পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বিজেপির। আর কংগ্রেস পেতে পারে মাত্র ২০ শতাংস ভোট। আর এইআইএডিএমকে পেতে পারে ২১ শতাংশ ভোট। 
 রেঁনেসার সমীক্ষা রিপোর্ট রীতিমত হতাশ করেছে স্ট্যালিনের ডিএমকে-কে। কারণ অধিকাংশ পরিবারই এই দলটি থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। অন্যদিকে এখনও পর্যন্ত ভোটে একাই লড়াই করছে এন আর কংগ্রেস। কিন্তু পরবর্তীকালে এই দলটি বিজেপি এআইএডিএমকে অথবা কংগ্রেস -ডিএমকে জোটের সঙ্গে হাত মেলাতে পারে। যদি এনআর কংগ্রেস বিজেপি ও তার সহযোগীদের সঙ্গে হাত মেলায় তাহলে জোটের আসন সংখ্যায় আরও বড় পরিবর্তন আসতে পারে। সেইসময় ফলাফল জোটের পক্ষেই যাবে। 

সমীক্ষা রিপোর্ট একপ্রকার প্রায় নিশ্চিত যে এনআর কংগ্রেস যাই অবস্থান নিক না কেন আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে হাওয়া কংগ্রেস ডিএমকে জোটের অনুকূলে রয়েছে। কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলে জোট প্রায় নিশ্চিহ্ন হয়ে যেতে পারে বলেও আশঙ্কা করা হয়েছে। ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে এনআর কংগ্রেস, বিজেপি ও এআইএডিএমকে সবমিলিয়ে মোট আটটি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিল। সেই এইআইএডিএমকে একাই  চারটি আসনে লড়াই করেছিল।  গত নির্বাচনে পুদুচেরিতে একটিও আসন পায়নি বিজেপি।