Asianet News BanglaAsianet News Bangla

পিলুর রঙ্গন মিঠাইয়ের সুদীপ্ত, মিঠাইয়ের সোম পিলুতে রঙ্গন, ধারাবাহিক দুটিতে হচ্ছেটা কি বুঝে পাচ্ছেন না দর্শক

রুদ্রজিৎ মুখোপাধ্যায় যিনি পিলু ধারাবাহিকে রঙ্গনের ভূমিকায় অভিনয় করেন তাকে মিঠাইতে পুলিশ অফিসার সুদীপ্ত রায়ের ভূমিকায় দেখা যাবে। ওমিকে শায়েস্তা করতেই নাকি তার মিঠাইতে আগমন।

Audiences of Zee Bangla Serial Pilu and Mithai are confused as the both serials are exchanging their main characters anbsd
Author
First Published Aug 13, 2022, 6:18 PM IST

মিঠাই আর পিলু জি বাংলার দুটি জনপ্রিয় ধারাবাহিক। মিঠাই আর পিলুর বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ন চরিত্র উভয় ধারাবাহিকেই আছে। মিঠাইয়ের সোম বেশ কয়েক মাস ধরেই পিলুতে মল্লারের চরিত্রে অভিনয় করছেন। এবার পিলুর রঙ্গন মিঠাইতে পুলিশ অফিসারের চরিত্রে এন্ট্রি নিতে চলেছেন। রুদ্রজিৎ মুখোপাধ্যায় যিনি পিলু ধারাবাহিকে রঙ্গনের ভূমিকায় অভিনয় করেন তাকে মিঠাইতে পুলিশ অফিসার সুদীপ্ত রায়ের ভূমিকায় দেখা যাবে। ওমিকে শায়েস্তা করতেই নাকি তার মিঠাইতে আগমন। তাহলে কি মিঠাইয়ের আরেক পুলিশ অফিসার এসিপি রুদ্রদেব অর্থাৎ ফাহিম মির্জাকে আর দেখা যাবে না মিঠাইতে ? না সেরকমটা মোটেই নয়।

রুদ্রই নাকি রঙ্গন মানে সুদীপ্ত রায়কে দায়িত্ব দিয়েছেন মোদক বাড়িকে ওমির হাত থেকে রক্ষা করার। রঙ্গনের চরিত্রের একেবারে বিপরীত সুদীপ্ত। প্রথম জন প্রচণ্ড হুল্লোড়ে। দ্বিতীয় জন গম্ভীর, দায়িত্ববান অফিসার। আর এই নতুন চরিত্র পেয়ে খুব খুশি রুদ্র। পুলিশের ইউনিফর্ম পড়তে পেরে বেজায় খুশি সে। এতদিনের শরীর চর্চা অবশেষে সার্থক হয়েছে কিনা! আবার একই সঙ্গে দুই ধরনের চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পেয়েও নিজেকে ভাগ্যবান বলে মনে করছেন রুদ্র।সোশ্যাল মিডিয়ায় মিঠাইতে নিজের চরিত্রের ফার্স্ট লুক নিজেই শেয়ার করেছেন অভিনেতা। ক্যাপশনে, স্পেশ্যাল অফিসার সুদীপ্ত রায়। হ্যাশট্যাগ মিঠাই,  আর তাতেই দর্শকদের বুঝতে বাকি নেই যে জনপ্রিয় ধারাবাহিকে তাকে দেখা যাবে এরপর। মিঠাইয়ের পরিবারকে বিপদের হাত থেকে বাঁচাতেই সুদীপ্তর আগমন।

আরও পড়ুনঃ 

শিবপুর নামের রাজনৈতিক থ্রিলারে আইপিএস অফিসারের ভূমিকায় পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়

কেউ বিকিনি তো কেউ শর্টস, সুইমিংপুলে জলকেলিতে মত্ত 'গাঁটছড়া' টিম, ভিডিও সুপার ভাইরাল

​​​​​​​যে তথাগত সমালোচনা করেছেন তার দুঃসময়ে তার পাশেই দাঁড়িয়ে দেব প্রমাণ করলেন কেনো তিনি সুপারস্টার
ইতিমধ্যেই অজ্ঞাত পরিচয়ে, ছদ্মবেশে মনোহরায় এসে পৌঁছেছে ওমি। এবার তার একটাই লক্ষ্য, সিড মিঠাইকে আলাদা করা। মোদক বাড়িতে বম্ব ব্লাস্ট করার প্ল্যান করেছে সে। মনোহরার বৈঠক খানায় ক্যামেরা, স্পিকার লাগিয়ে এসেছে ওমি। সেগুলির মাধ্যমেই সিদ্ধার্থদের সঙ্গে কথা বলছে সে। এক প্রকার মানসিক অত্যাচার চালাচ্ছে তাদের উপর।পরিবারের সদস্যদের বাঁচানোর দায়িত্ব সিদ্ধার্থের কাঁধে। ওমির লুকিয়ে রাখা বিস্ফোরক খুঁজে বার করে নিষ্ক্রিয় করবে সে। তাকে সাহায্য করবে সন্দীপ এবং রাজীব।
এ সবের মাঝেই ঘুম ভাঙে তোর্সার। এক সময়ে তার সুসম্পর্ক ছিল ওমির সঙ্গে। তাই বিপদের সময় শত্রুর কাছে সাহায্য চাওয়ার শেষ চেষ্টাটুকু করে সে। কিন্তু তাতে কোনও লাভ হয় না! এবার গল্পে আসবে নতুন চরিত্র সুদীপ্ত। দেখা যাক তিনি ওমিকে আদেও শায়েস্তা করতে পারেন কিনা। মিঠাইতে রুদ্রজিৎকে দেখার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন ভক্তরা।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios