আজকালকার বাংলা কিংবা হিন্দি ধারকাবাহিক থেকে মন উঠে একাধিক দর্শকরাই ঝুঁকেছে ওয়েব সিরিজের দিকে। তাদের মতে, ওয়েব সিরিজ অনেক বেশি বাস্তবের সঙঅগে জড়িত, গল্পের ভিন্নতাও অমেক বেশি। তবে কি সত্যি টেলিভিশনের জগতে গল্পের এতটাই অভাব। এর উত্তর দিল 'তিতলি' ধারাবাহিক। ধারাবাহিকের মূল নায়িকা তিতলি মেয়েটি কানে শুনতে পায় না। সকলের ঠোঁট পরে কথা বলে। সেই মেয়েই নাকি হঠাৎ প্লেন ওড়াল। 

সদ্য মুক্তি হওয়া 'তিতলি' ধারাবাহিকের প্রোমো এখন রীতিমত ভাইরাল ইন্টারনেটে। নেটিজেনদের প্রশ্ন একটাই। লেখক কি গাঁজা খেয়ে এই ধারাবাহিকটির গল্প লিখেছিল। তিতলি প্রথমবার প্লেনে উঠেছে যাত্রী হিসাবে। সেই প্লেনের এক পাইলটের হঠাৎই হার্ট অ্যাটাক হয়। সেই মুহূর্তে হঠাৎই তিতলি ছুটে গেল ককপিটের দিকে। এমনকি তার স্বামীও তার পিছন পিছন ছোটে সেদিকে। তাদের আটকাবার তাগিদ এদিকে কারোর নেই। 

আরও পড়ুনঃশঙ্খকে কাছে না পেয়েও বেশ আনন্দে মোহর, কার কথা ভেবে Blush করছেন সোনামণি

 

ককপিটে ঢুকে বরকে হেডফোন পরতে বলে কন্ট্রোল রুমের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলে তিতলি। ঝুঁকি নিয়ে প্লেনও ওড়াল। এই দেখে নেটিজেনরা হাসবে নাকি কাঁদবে তা বোঝা মুশকিল। লেখক, নির্মাতা, অভিনেতা, অভিনেত্রী, প্রযোজকদের নিয়ে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে ট্রোলিং। তাদের কথায়, গল্পের গরু কতখানি গাছে উঠতে পারলে এমন প্রোমো পোস্ট করার সাহস পায় এই ধারাবাহিক। এর আগেও 'কৃষ্ণকলি' ধারাবাহিকে অপারেশন থিয়েটারে ইলেক্ট্রিক শক দেওয়ার মেশিনের জায়গায় স্কচ ব্রাইট ব্যবহার করা হয়েছিল বলে সাংঘাতিক ট্রোলিং হয়।