বাংলা সিনেমা জগতের অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং সফল অভিনেত্রী হিসেবে প্রথমেই মনে আসে তাঁর নাম। ডুবে যাওয়া বাংলা সিনেমা জগত-কে বুম্বাদার পাশাপাশি কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে ধরে রেখেছিলেন তিনিও। তিনি আর কেউ নন, সকলের প্রিয় অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। জাতীয় পুরষ্কারপ্রাপ্ত এই অভিনেত্রীর আজ জন্মদিন।

আরও পড়ুন- অভিনয় জগতে পঞ্চাশ বছর শাহেনশাহ-র, আবেগঘন টুইট ভক্ত অভিষেকের

 ১৯৯২ সাল থেকে বাংলা চলচ্চিত্র জগতের সঙ্গে যুক্ত ঋতুপর্ণা। প্রভাত রায়ের পরিচালনায় তাঁর অভিনীত ছবি শ্বেতপাথরের থালা, জাতীয় পুরস্কার পেয়েছিল। বাংলা ছবিতে অভিনয় করার পাশাপাশি একাধিক বাংলাদেশী ও হিন্দি চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেন নি তিনি। যে কোনও ধারার সিনেমাতে তার সুদক্ষ অভিনয় এনে দিয়েছে একাধিক পুরস্কার। অভিনয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন সমাজ সেবামূলক কাজের সঙ্গেও জড়িত অভিনেত্রী। 

আরও পড়ুন- 'ব্রা-লিট' কি অন্তর্বাস না অন্যকিছু, ইলিয়ানার ফ্যাশন মহিমায় পুরুষরা কাত

শ্বেতপাথরের থালা-র পর একের পর জনপ্রিয় বাংলা ছবি উপহার দিয়েছেন বাংলা সিনেমা জগত-কে। ঋতুপর্ণ ঘোষের দহন (১৯৯৭), উৎসব (২০০০), অপর্ণা সেনের পারমিতার একদিন (২০০০) ও বুদ্ধদেব দাশগুপ্তের মন্দ মেয়ের উপাখ্যান (২০০২) ছবিতে তার অভিনয় বিদগ্ধ মহলের প্রশংসা অর্জন করে। দহন ছবিতে ধর্ষণের শিকার এক নববিবাহিতা রোমিতা চরিত্রে অভিনয় করে তিনি ১৯৯৮ সালে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসাবে অর্জন করেন জাতীয় পুরস্কার। অভিনয়ের পাশাপাশি একটি নাচের দলও আছে অভিনেত্রীর। এই দল রবীন্দ্রনাথের 'চিত্রাঙ্গদা', 'চণ্ডালিকা', 'শ্যামা', 'মায়ার খেলা' প্রভৃতি নৃত্যনাট্য ও অন্যান্য আধুনিক ভাবনার নৃত্যানুষ্ঠান মঞ্চস্থ করে খ্যাতিলাভ করেছেন।