রবিবার মানেই মন ভাল করা এক সকাল। সারা সপ্তাহের পরে থাকা কাজ, ক্লান্তি ধুয়ে মুছে সাফ করার মোক্ষম দিন রবিবার। আর সেই রবিবারেই এমন এক ঘটনা ঘটল যা পুরো বদলে দিল ছুটির দিনের আসল  মেজাজটাকে। সম্প্রতি মুক্তি পেল পরিচালক অতনু ঘোষ পরিচালিত 'রবিবার'-এর ট্রেলার। ছুটির দিনে মুখোমুখি সায়নী (জয়া) এবং অসীমাভ (প্রসেনজিৎ)। মাঝে কেটে গিয়েছে দীর্ঘ ১৫ বছর।  তারপর হঠাৎ দেখা। সম্পর্কের পুরোনো সমীকরণে রদবদল না ঘটলেও দিনের শেষে নতুন করে সম্পর্কের যে নয়া মোড় উঠে আসবে। বিষণ্ণতা কাটিয়ে আত্মপ্রকাশ করবে নয়া অনুভূতি। কেউ কারোর কাছে ফিরে না গেলেও নতুন এক আনন্দ উদ্দীপনায় ভরে উঠবে তাদের এই সম্পর্ক।  নিজেকে অনেকটা কাছ থেকে চেনা, নিজেকে মেনে নেওয়ার গল্প শোনাবে এই সিনেমা। 

আরও পড়ুন-একাধিক চুম্বন থেকে বিছানায় অন্তরঙ্গতা, নয়া অবতারে ধরা দিলেন শ্বেতা...

রবিবারের ছুটির দিনটি যেন আরও একটু স্পেশ্যাল হয়ে উঠেছে 'রবিবার'-এর কারণেই। শহুরে জীবন মানেই বিষাদে পরিপূর্ণ। নিত্য নৈমিত্তিক অশান্তি যেন পিছু ছাড়ে না। শহরের এই গতে বাধা প্রেক্ষাপটে সম্পর্কের জাল বুনতে পারদর্শী পরিচালক। কাটাছেড়া সম্পর্কের মধ্যে কীভাবে প্রাণের খোঁজ পাওয়া যায়, তা তিনি ভালভাবে বুঝিয়ে দিয়েছেন। আর তাইতো 'ময়ূরাক্ষী-বিনিসুতো-রবিবার'-এই তিনটিকে একটি সুতোতে তিনি বেঁধেছেন। প্রতিটি ছবিতেই দুইয়ের মধ্যে তিনি সম্পর্ক স্থাপন করেছেন। 'ময়ূরাক্ষী' বাবা-ছেলের গল্প বলেছিল, 'বিনিসুতো' দুজন অচেনা মানুষের সম্পর্ক নিয়ে তৈরি। আর 'রবিবার'-এ থাকছে চেনা দুই মানুষের ফিরে আসার কাহিনি। 

 

আরও পড়ুন-৩৩ বছরের ছোট মুন্নি এখন বদনাম করছেন বলিউডের ভাইজানকে, জল্পনা তুঙ্গে...

১৫ বছর পরে একে অপরের সঙ্গে দেখা হলেও তারা কিন্তু কাছাকাছি ফিরবেন না। তার বদলে চেনা সমীকরণ যেন পাল্টে যাবে একদিনের ঘটনায়। ট্রেলার দেখে যা বোঝা গেল দীর্ঘ ১৫ বছরে সম্পর্কের ছেদ অনেকটাই পড়েছে। কিন্তু কেউ কাউকে ভুলে যাননি। পুরোনো সব অভ্যেসই মনে রয়ে গেছে দুজনেরই। ট্রেলারে খানিক থ্রিলারেরও আভাস পাওয়া গেছে। পরিচালকের ট্রিলজির শেষ ছবি এটি। তবে 'বিনিসুতো' এখনও মুক্তি পায়নি। ছবিতে এই প্রথমবার স্ক্রিন শেয়ার করতে দেখা যাবে প্রসেনজিৎ এবং জয়াকে। ছবিতে বেশ অন্তরঙ্গ মুহূর্তে ধরা দিয়েছেন এই দক্ষ অভিনেতারা। ডিসেম্বর মাসেই প্রেক্ষাগৃহে আসতে চলেছে এই ছবি। আপাতত আরও একটা মনমাতানো 'রবিবার'-এর অপেক্ষায় রয়েছেন সিনেমাপ্রেমীরা।