জটিল থেকে জটিলতর। টলিপাড়ার বর্তমান অবস্থাটাই এখন টালমাটাল। এত প্রচার, এত কিছু করে সকলকে আশার আলো দেখিয়ে ১০ তারিখ শুটিং শুরু করার ঘোষণা করে ফের অনিশ্চয়তা। বর্তমান পরিস্থিতিতে কোনওভাবেই শুটিং করা যাচ্ছে না। সুতরাং যারা ভেবেছিলেন টলিপাড়া আবার পুরোনো ছন্দে ফিরছে তা একেবারেই ভুল। আজ থেকে শুরু হচ্ছে না শুটিং। হাজারো সমস্যা এড়িয়ে গতকাল রাতে জরুরি ভিত্তিতে টেকনিশিয়ান স্টুডিওতে বৈঠকের আয়োজন করা করেছিল ডব্লিউএটিপি ফেডারেশন, আর্টিস্ট ফোরাম ও বিনোদন চ্যানেলের প্রতিনিধিরা। সেখানেই সমস্যা বাধে। আর্টিস্ট ফোরামের থেকে দাবি করা হয়েছিল স্বাস্থ্য বিমার নথি হাতে না পাওয়া পর্যন্ত আর্টিস্টদের সুরক্ষা ও বিমার দায়িত্ব নিতে হবে বিনোদন চ্যানেল ও প্রযোজকগের।  কিন্তু সেই দাবি মেনে নিতে পারেন নি ডব্লিউএটিপি ফেডারেশন এবং চ্যানেল কতৃপক্ষ।

আরও পড়ুন-শরীরী হিল্লোল সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় তুললেন রঙ্গবতী গার্ল, দেখে নিন ভিডিওতে...

সূত্র থেকে আরও জানা গেছে, ফোরামের সভাপতি শঙ্কর চক্রবর্তী জানিয়েছেন, ' আমাদের শুটিং করতে কোনও বাধা নেই। কিন্তু এখনও অবধি  বিমার কোনও নথি হাতে আসেনি। তাই আর্টিস্টদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে আমরা চ্যানেল ও প্রযোজকদের অনুরোধ করেছিলাম, এই সময়ের মধ্যে কোনও অঘটন ঘটলে তার দায়িত্ব যেন তারা নেন, কিন্তু সেটা তারা মানতে নারাজ। ' ফোরামের আর অনেকেই আর্টিস্টদের সুরক্ষার বিষয়টি নিয়ে গভীর চিন্তিত।। সেই কারণেই এই অনুরোধ করা হয়েছিল ডব্লিউএটিপি ফেডারেশন এবং চ্যানেল কতৃপক্ষকে। কিন্তু তারা কোনওমতেই এই অনুরোধে রাজি হয়নি। এই একটা জায়গাতেই আটকে রয়েছে জট। কবে এই জট খুলবে তা নিয়েও চিন্তিত রয়েছে সকলেই।

আরও পড়ুন-অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী, প্রথম সন্তান আসার আগেই চিরঘুমে জনপ্রিয় অভিনেতা...


 ' আমরা এবং চ্যানেল শুটিং শুরু করতে প্রস্তুত ছিলাম। কিন্তু যে দাবি আর্টিস্ট ফোরাম করেছে, সেটা চ্যানেল বা আমাদের পক্ষে মানা কোনওভাবেই সম্ভব নয়। আগামিকাল শ্যুটিং শুরু না হলে চ্যানেল অনির্দিষ্টকালের জন্য শ্যুটিং শুরু করা স্থগিত করে দিতে পারে।' বলে জানিয়েছেন ডব্লিউএটিপি-র প্রেসিডেন্ট শৈবাল বন্দ্যোপাধ্যায় । ডব্লিউএটিপি-র সদস্য পরিচালক রাজ চক্রবর্তী জানিয়েছেন, আমরা রেডি ছিলাম। কিন্তু আর্টিস্ট ফোরাম য বলল তা কোনওমতেই মানা সম্ভব নয়। আর সেই কারণেই শ্যুটিং শুরু করা যাচ্ছে না। কিন্তু আজ আর জ্বলবে না টলিপাড়ার নিভন্ত লাইট। শুধু তাই নয় লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশন থেকে আজ  অনেকটাই অন্ধকারে টলিপাড়ার ভবিষ্যত।