ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্য। পোস্টটি ডিলিট করে ক্ষমাপ্রার্থী হওয়া, তারপর চুপিসারে তিন নম্বর বিয়ে সেরে ফেলা। একের পর এক শিরোনামে উঠে আসছে বাংলাদেশি গায়ক নোবেল। যাঁকে নিয়ে বাংলার সর্বোচ্চ সঙ্গীতের রিয়্যালিটি শো সারেগামা-এ চূড়ান্ত মাতামতি ছিল। তাঁর বিয়ের ছবি দু'দিন আগে রীতিমত ভাইরাল হয় নেটদুনিয়ায়। এবার তাঁকে নিয়ে মন্তব্য করলেন টলিউড গায়িকা বিশ্বজিতা দেব। নোবেলের মোদিকে নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্য নিয়ে ফেসবুক পোস্টে ক্ষোভ উগরে দিলেন বিশ্বজিতা। বাংলাদেশি গায়ককে নিয়ে নানা কথা বলেছেন বিশ্বজিতা। "যে দেশে এসে সম্মান পেল, খ্যাতি অর্জন করল, সেই দেশের প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে এমন মন্তব্য করে কীকরে।"

আরও পড়ুনঃ৯০ কেজি থেকে একধাক্কায় কমিয়েছিলেন ৩০ কেজি, সোনাক্ষির টোনড ফিগারের পিছনে রয়েছে এই পুরুষ

বিশ্বজিতা আরও বলেন, "নিজের কি এমন গানের অ্যালবাম ছিল যার জন্য এরম চিপ পাব্লিসিটি স্টান্ট করতে হল। নোবেলের হয়তো মনে নেই ওকে নিয়ে আমি বাংলাদেশেরই চ্যানেলে গিয়ে উচিত শিক্ষা দিয়ে এসেছিলাম। এখনও ভিডিওগুলো ইউটিউবে আছে। মনে না থাকলে আরও একবার গিয়ে দেখে নাও।" বিশ্বজিতার সঙ্গে নোবেলের শত্রুতা প্রায় দু'বছর আগের। বিশ্বজিতাও একই রিয়্যালিটি শো থেকে জনপ্রিয় হয়েছিলেন। বিশ্বজিতার আগেও সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, নোবেলকে তিনি ওভাররেটেড ভাবেন।

আরও পড়ুনঃআবারও বলিউডে করোনার হানা, এবার আক্রান্ত রিলায়েন্স এন্টারটেইনমেন্টের সিইও

তাঁর কথায় নোবেলের চেয়ে এমন একাধিক প্রতিযোগীরা ভাল গায়। তবুও তাঁকে নিয়ে কেন এত মাতামাতি হয় তা তিনি বুঝতে পারেন না। যে শোয়ের হাত ধরে নোবেল জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন এবং সেকেন্ড রানার আপ হয়েছিলেন। বিশ্বজিতার জনিয়েছিলেন, নোবেলের মোটেই দ্বিতীয় রানার আপ হওয়ার যোগ্যাতা নেই। প্রসঙ্গত, একটি ভিডিও আপলোড করে জানান, নিজের আগামী গানের জন্যই মোদিকে নিয়ে ওই স্টেটাস দেওয়া। গানটির নাম তামাশা। গানটির সঙ্গে পরিস্থিতির মিল রাখার জন্যই এতকিছু করেন নোবেল। কাউকে ব্যক্তিগতভাবে আক্রমণ করার কোনও উদ্দেশ্য ছিল না নোবেলের। সবটাই গানের প্রচারের কারণে করা। বলে ক্ষমা চান নোবেল। তবুও সকলের প্রশ্ন, গানের প্রচারের জন্য তো অন্য কিছুও করা যেত, এমন কুমন্তব্য করা কেন।