রিল্যায়েন্স এন্টারটেনমেন্টের সিইও শিবাশিস সরকার করোনায় আক্রানম্ত হয়েছে। বহু বলিউড ছবির পোস্ট প্রোডাকশন লকডাউনের কারণে আটকে ছিল, এবার শিবাশিসের অসুস্থতার কাজের চাপ বাড়ল কয়েক গুণ। '৮৩' ছবির একটি প্রযোজনা সংস্থা ছিল রিল্যায়েন্স এন্টারটেনমেন্ট। করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর শিবাশিসকে তৎক্ষণাথ হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। তারপরই একটি খবরে ছেয়ে গিয়েছিল নিউজ ফিড। দীপিকা নাকি টেকওভার করছেন শিবাশিসের অবর্তমানে। পোস্ট প্রোডাকশনের দায়িত্ব নাকি অভিনেত্রী নিজে হাতে সামলাবেন।

আরও পড়ুনঃ'জনপ্রিয়তার জন্য মোদিকে নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্য করতে হবে', নোবেল বিতর্কে বিশ্বজিতার ভিডিওতে জল্পনা তুঙ

এই খবরে জল ঢেলে দিয়ে দীপিকার ঘনিষ্ঠ সূত্র মারফত জানা যায়, "করোনা প্রকোপের মধ্যে আমরকা সকলের আরোগ্য, সুস্থতার কামনা করছি। এই সময় ভুয়ো খবর ছড়ানোটা কেমন মানসিকতার মধ্যে পড়ে জানি না। দীপিকা ছবির অন্যান্য প্রযোজকদের মধ্যে '৮৩'র অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একজন। কিন্তু পোস্ট প্রোডাকশন সামলানোর জন্য একজন দায়িত্ববান পরিচালক কবীর খান রয়েছেন। ছবিটি যে দায়িত্ব নিয়ে তিনি পরিচালনা করেছেন। তেমন পোস্ট প্রোডাকশনের কাজও করবেন। এই মুহূর্ত দাঁড়িয়ে এমন ভুয়ো খবর ছড়ানো নিচু মানসিকতার পরিচয় পায়।"

আরও পড়ুনঃবোনের জন্য চার্টার ফ্লাইট বুকিং, ভুয়ো খবরে ক্ষোভ উগরে আইনি পদক্ষেপ অক্ষয়ের

 

ছবিটি নিয়ে বিতর্কের শেষ নেই। ওটিটি রিলিজ নিয়ে প্রথমে জানা গিয়েছিল একেবারেই রাজি নন, ছবির পরিচালক থেকে শুরু করে প্রযোজক এবং তারকারা। এপ্রিল মাসে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ছবিটি। তবে লকডাউনের কারণে সমস্ত কাজ আটকে যায়। ছবির মুক্তি পিছিয়ে যায়। এবার পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ শেষ হলে ছবিটি অনলাইনে মুক্তি পায় কিনা সেটাই দেখার বিষয়। ছবির বেশ কয়েকটি পোস্টার ভাইরাল হয়েছিল নেটদুনিয়ায়। ১৯৮৩ সালে ভারতের ওয়ার্ল্ড কাপ জেতার ঘটনা নিয়ে তৈরি হয়েছে ছবিটি। কপিল দেবের ভূমিকায় রয়েছেন রণবীর সিং এবং তাঁর স্ত্রীয়ের ভূমিকায় দীপিকা পাডুকোন। অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে দেখআ যাবে পঙ্কজ ত্রিপাঠি, তাহির রাজ ভসিন, সাকিব সালিম, হার্ডি সন্ধু সহ অনেককে।