সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পিছনে দায়ী বলিউড মাফিয়া দল। দাবি নেটিজেন সহ বেশ কয়েক তারকারও। এমনকি বিহারের আইনজীবি সুধীর কুমার ওঝাও একই দাবি মেনে সলমন খান সহ সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছেন। সুশান্তের মৃত্যুর সঙ্গে সংযোগ রয়েছে বলিউডের বহু ব্যক্তিত্বদের। সলমনের বিরুদ্ধে ফুঁসছে গোটা দেশ। এরই মাঝে বিপদে পড়লেন অভিনেতা তথা কমেডিয়ান সুনীল গ্রোভার। সলমনের সঙ্গে ছবি পোস্ট করে ট্রোলড হলেন তিনি। নিন্দাও শুরু হয়েছে তাঁকে নিয়ে। সেই নিন্দারই জবাব দিলেন সুনীল।

আরও পড়ুনঃগলায় ফাঁস দিয়ে খুন করা হল সুশান্তকে, পুরনো ভাইরাল ভিডিওতে গা শিউরে উঠছে নেটিজেনের

তিনি ট্যুইটে লিখেলেন, "আমি সলমন খানকে ভালবাসি এবং শ্রদ্ধা করি।" পরের ট্যুইটেই ট্রোলের জবাবে জানান, "এবার এই ট্রোলারদের কাজে লাগিয়ে আমার বেশ ভালই লাগছে। ভগবান আমায় রক্ষা করো এই আজগুবি পৃথিবী থেকে।" আরও একটি ট্যুইটে সুনীল লেখেন, "সত্যতা এবং তথ্যের মধ্যে পার্থক্য করা শেখা উচিত। যুক্তির ছাড়া কোনও তথ্যেকে মেনে নেওয়া সম্ভব নয়। কিন্তু সত্য এমনই জিনিস যা নিজের অভিজ্ঞতা এবং দৃষ্টিভঙ্গির দ্বারা বিচার করতে হয়।" আরও পড়ুনঃট্রেন্ডে গা ভাসালেন 'জবা', নিমেষে লাইকের বন্যা ছবিতে

 

 

 

প্রসঙ্গত, দিন কতক আগে সলমনের বিরুদ্ধে বিং হিউমান শোরুমের সামনে 'সলমন খান মুর্দাবাদ' বলে স্লোগানে ভেসেছিল প্রতিবাদীরা। সুশান্তের মৃত্যুর জন্য দায়ী করা হচ্ছে বলিউড মাফিয়া দলকে। সেই গ্যাংয়ের মধ্যে একজন হলেন সলমন খান। মুম্বইয়ের বান্দ্রার বিং হিউমান শোরুমের সামনে চলে প্রতিবাদ মিছিল। সলমন খান মুর্দাবাদ বলে চিৎকার করে সুশান্তের ভক্তরা। সেই ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল নেটদুনিয়ায়। ব্যানার নিয়ে মিছিল শুরু করেছিল প্রতিবাদীরা। ব্যানারে লেখা, সুশান্তের মৃত্যুতে সিবিআই তদন্ত চাই। আরও লেখা, সুশান্তের মৃত্যু আত্মহত্যা নয়, পরিকল্পিত খুন। বলিউডকে বয়কট করা হোক। নেপোটিজমকে বয়কট করা হোক।