মমতা বনাম শুভেন্দু। দ্বিতীয় দফার নির্বাচনের আগে এটাই প্রায় মিথে পরিণত হয়েছে ভোট-বাংলায়। আর তাতে আগুন দিচ্ছে দুই পক্ষই। মঙ্গলবার শেষ প্রচারের দিনে শুভেন্দু অধিকারীর হয় একটি রোডশো করেন অমিত শাহ। রেড শো শেষে রোয়াপাড়ায় স্থানীয় একটি শিব মন্দিরে পুজোও দেন তিনি। তারপরই সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেন নন্দীগ্রামের মানুষের অভূতপূর্ব সাড়া দেখে তিনি অভিহিত। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারীর জয় প্রায় নিশ্চত বলেও মন্তব্য করেন তিনি। 


নন্দীগ্রামের সংবাদিক বৈঠক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অমিত শাহ রাজ্যের নারী নিরাপত্তা প্রসঙ্গ তুলে কটাক্ষ করেন শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসকে। তিনি বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতেই এই এলাকা মহিলারা নিরাপদ নন। কারণে তাঁর উপস্থিতির সময়তেই মাত্র পাঁচ কিলোমিটার মধ্যেই এক মহিলাকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন অমিত শাহ। তিনি বলেন এটি খুবই দুঃখজনক ঘটনা। নন্দীগ্রামের তেঁতুলবেড়িয়ায় বিজেপি কর্মীর স্ত্রীকে ধর্ষণের পর মুখ বেঁধে ফেলে যাওয়া হয়েছিল বলে অভিযোগ উঠেছে। সোমবার রাতে শুভেন্দু অধিকারীর হয়ে প্রচার করে বাড়ি ফেরার সময় এক দল দুষ্কৃতী বিজেপি কর্মীর স্ত্রীকে হাত পা ও মুখ বেঁধে ফেলে রেখে যায়। নির্যাতিতার মহিলাকে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে। আর এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই বিজেপি নেতা অমিত শাহ নিশানা করেন মুখ্যমন্ত্রীকে। নিমতায় বিজেপি কর্মীর মায়ের মৃত্যুর ঘটনাও উল্লেখ করেন তিনি। বলেন দেখে নিন বাংলার নারী নিরাপত্তার কী দশা। একই সঙ্গে তিনি বলেন দিদিকে হারাতে পারলে এই রাজ্যে এমনি পরিবর্তন হবে।

শেষ প্রচারে উত্তপ্ত 'হটস্টপ' নন্দীগ্রাম, প্রবল রোদে জনসংযোগে ঘাম ঝরালেন মমতা-শুভেন্দু-মীনাক্ষী ...  

ভোটের আবহেই ফের প্রশ্নের মুখে নারী নিরাপত্তা, দোলের দিন জঙ্গলে ২ আদিবাসী নাবালিকাকে গণধর্ষণ ...


মঙ্গলবার দুপুর ১২টা নাগাদ বেথুরিয়া থেকে রোয়াপাড়া পর্যন্ত প্রায় চার কিলোমিটার রাস্তা জুড়ে নন্দীগ্রামের বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারীকে সঙ্গে নিয়েই দলের শক্তি প্রদর্শন করেন বিজেপি নেতা অমিত শাহ। বিজেপির মিছিলে উৎসাহী জনতার ভিড় ছিল চোখে পড়ার মত। স্থানীয় বাসিন্দারা রাস্তার দুই পারে দাঁড়িয়ে জয়শ্রীরাম স্লোগান দেন। নরেন্দ্র মোদীর জয়ধনীও দেন তঁরা। অনুগামীদের অমিত শাহ শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে সেলফি নিতেও দেখা যায়। অন্যদিকে এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও একটি রোড শো ও তিনটি জনসভা করেন নন্দীগ্রামে। সেখানে তিনি কড়া সুরেই নিশানা করেন বিজেপিকে।