তাপস দাস, প্রতিনিধি, দক্ষিণ ২৪ পরগনার বাসন্তী তফশিলি জাতিভুক্তদের জন্য সংরক্ষিত বিধানসভা কেন্দ্র। ১৯৬২ থেকে ১৯৭২ সাল পর্যন্ত এখানে কংগ্রেস জিতেছে। ১৯৭৭ সাল থেকে শুরু করে, ২০১১ সাল, যেবার বাম সরকারের পতন ঘটল সেবার অবধিও এখানে আরএসপি ছাড়া কেউ জেতেনি। ১৯৮২ সাল থেকে এই কেন্দ্র জিতিয়েছে একজনকেই, তিনি পরে মন্ত্রীও হয়েছিলেন। তিনি সুভাষ নস্কর। ২০১৬ সালের ভোটে এখানে জেতে তৃণমূল কংগ্রেস, তাদের প্রার্থী ছিলেন গোবিন্দচন্দ্র নস্কর। 

মোদী সরকারের কিছু প্রকল্প, যার লক্ষ্য মহিলাদের স্বনির্ভরতা ...

রাজ্যে সম্পূর্ণ পরিবর্তন- বিজেপিই সরকার গড়ছে, বলছে শেষ কয়েকটি জনমত সমীক্ষা ..

২০১১ সালে সুভাষ নস্কর জিতলেও মার্জিন কমেছিল অনেকটাই। তিনি জেতেন মাত্র ৬ হাজারের কিছু বেশি ভোটে। বামফ্রন্টের ভোট শেয়ার কমেছিল ১৭ শতাংশ। ২০১৬ সালের ভোটে গোবিন্দ নস্কর পেয়েছিলেন ৯০ হাজারেরও বেশি ভোট, সুভাষ নস্কর পেয়েছিলেন ৭৪ হাজারের কিছু কম ভোট। বিজেপি প্রার্থী পঙ্কজ রায় ১০ হাজারের বেশি ভোট পেয়ে তৃতীয় স্থানে ছিলেন। বাসন্তী জয়নগর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্ভুক্ত। ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটে এই কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী দু নম্বরে ছিলেন বটে, কিন্তু তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের প্রায় অর্ধেক ভোট পেয়েছিলেন। 

এবারে বাসন্তী কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হয়েছেন শ্যামল মণ্ডল, আরএসপির প্রার্থী সুভাষ নস্কর। বিজেপির প্রার্থী রমেশ মাজি। বাসন্তী বিধানসভায় ভোটগ্রহণ হবে তৃতীয় পর্যায়ে, ৬ এপ্রিল।