করোনাভাইরাস সংক্রমণে এবার মৃত্যু দেখলও উত্তর-পূর্ব ভারতও। অসমের শিলচর মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালে মৃত্যু হল ৬৫ বছরের এক ব্যক্তির। মৃত ব্যক্তির নাম ফইজুল হক বর্ধন। অসমের হালিকান্দি জেলার বাসিন্দা ফইজুল হকই উত্তর-পূর্ব ভারতের প্রথম ব্যক্তি যিনি করোনার বলি হলেন। 

অসমের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হেমন্ত বিশ্বশর্মা ট্যুইট করেন, "দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি, হালিকান্দি জেলার বাসিন্দা শ্রী ফইজুল হক বর্ধনের (৬৫) মৃত্যু হয়েছে শিলচর মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালে। তার শরীরে কোভিড ১৯ রোডের সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছিল। এই সময়ে তাঁর পরিবারের জন্য আমার গভীর সমবেদনা থাকল।"

 

 

বর্তমানে অসমে করোনাভাইরাস সংক্রমণের মোট সংখ্যা ২৯। তারমধ্যে ফইজুল হকের মৃত্যু হলেও বাকিদের অবস্থা স্থিতিশীল বলেই দাবি করছে অসমের স্বাস্থ্য দফতর। 

গাড়িতেই এখন দিনযাপন, পরিবারকে বাঁচাতে বাড়ি ছাড়লেন করোনা চিকিৎসক

করোনার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ভুয়ো খবরের রমরমা, ফাঁদে পড়ে হাসপাতালে ভর্তি ২টি পরিবার

প্রয়োজনে টাকা ছাপিয়ে গরিবদের দিন, দেশের আর্থিক মন্দা কাটাতে দাওয়াই দিলেন নোবেলজয়ী

এদিকে দেশে ক্রমেই বাড়ছে সংক্রমণের সংখ্যা। শুক্রবার সকালে আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছে গেছে ছয় হাজারের ঘরে। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী সংখ্যাটা ৬৪১২। মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৯৯। এই অবস্থায় দেশে লকডাউনের সময়সীমা বাড়বে বলেই মনে করা হচ্ছে। শুনিবার বিষয়টি নিয়ে দেশের বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের নিয়ে ভিডিও কনফারেন্সে বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী। এদিকে বৃহস্পতিবারই ওড়িশায় লকডাউনের মেয়াদ বাড়িয়ে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত করে দিয়েছেন রাজ্যেন মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক।