ভবঘুরেদের দুবেলা অন্ন তুলে দিতে এবার পুলিশ প্রশাসন ও সাংবাদিকদের পাশে দাঁড়ালেন এক গৃহবধূ। নিজের সঞ্চিত অর্থ দিয়ে ভবঘুরেদের খাবার ব্যবস্থা করলেন তিনি। করলেন পরিবেশনও।

আরও পড়ুন: লকডাউনে দুর্ভোগ চরমে, মুম্বইয়ে অর্ধাহারে দিন কাটছে বাঙালি পরিবারের

বছরভর ট্রেনে, বাসে যাত্রীদের কাছে ক্ষুন্নিবৃত্তি করে কোনওমতে দিন চলে। কিন্তু লকডাউনে কারণে এখন সে উপায়ও নেই। বীরভূমের রামপুরহাট শহরে অসহায় ভবঘুরে মানুষদের খাওয়ানোর উদ্যোগ নিয়েছেন খোদ এসডিপিও সৌম্যজিৎ বড়ুয়া। সাংবাদিকদেরই গুরু দায়িত্ব দিয়েছেন তিনি।  এই মহৎ কর্মযঞ্চ এবার সামিল হলেন ছাপোষা গৃহবধূ কৃষ্ণা ঘোষ। রামপুরহাট শহরের  ধুলোডাঙ্গা রোডে থাকেন তিনি। নিজের গচ্ছিত অর্থ দেওয়াই শুধু তাই নয়, নিজে হাতে পরিবেশন করে ভবঘুরেদের খাওয়ালেন তিনি। পরিবেশন করেছেন রামপুরহাট মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সৌম্যজিত বড়ুয়াও। 

আরও পড়ুন: স্বরচিত গানে 'ভাইরাল', লকডাউনে নেটদুনিয়া মাতাচ্ছেন বাঁকুড়ার এই পুলিশ আধিকারিক

আরও পড়ুন: এশিয়ানেট নিউজ বাংলার খবরের জের, অনাহারে থাকা কালিন্দীরা হাতে পেলেন বন্ধক দেওয়া রেশন কার্ড

করোনা সতর্কতায়  ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তারপরেও যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে, সে নিশ্চয়তা নেই। বরং লকডাইনের মেয়াদ আরও বাড়ার সম্ভাবনাই বেশি। রামপুরহাটের মহকুমা পুলিশ আধিকারিক বা এসডিপিও সৌম্যজিৎ বড়ুয়া জানিয়েছেন, 'যতদিন লকডাউন চলবে, ততদিনই ভবঘুরদের খাওয়ানো হবে।'