করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়তে মাস্ক পরা আবশ্যক। সেইকারণে ইউরোপের দেশ নেদারল্যান্ডসকে ১৩ লক্ষ মাস্ক পাঠিয়েছিল চিন। কিন্তু সেই মাস্কের মান একেবারেই যথাযথ নয়। এই অভিযোগে চিনের দেওয়া সেই মাস্ক এবার ফেরত পাঠিয়ে দিল ডাচ প্রশাসন। 

নেদারল্যান্ডসের স্বাস্থ্যমন্ত্রক সূত্রে জানা যাচ্ছে, চিন থেকে গত ২১ মার্চ ১৩ লক্ষ মাস্ক সেদেশে এসেছিল। এরমধ্যে ৬ লক্ষ মাস্ক দেশটির বিভিন্ন হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যে বিতরণ করা হয়েছিল। কিন্তু এইসব মাস্কের ঠিক ভাবে মুখ ঢাকা যাচ্ছে না। আবার কিছু মাস্কের ফিল্টার ত্রূটিপূর্ণ বলে দাবি করেছে ডাচ স্বাস্থ্যমন্ত্রক। এরপরেই মাস্ক বিতরণ বন্ধ করে দেয় প্রশাসন। বাকি মাস্কগুলি ফেরত পাঠিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

 

এবার কি করোনা আক্রান্ত ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু, ক্রমেই ঘনীভূত হচ্ছে রহস্য

করোনায় আক্রান্ত একই পরিবারের ২৫ জন, দেশে গোষ্ঠী সংক্রমণ নিয়ে ফের উঠতে শুরু করল প্রশ্ন

'আমার সঙ্গে করুন যোগাসোন', লকডাউনে সুস্থ থাকতে দেশবাসীর জন্য ভিডিও পোস্ট প্রধানমন্ত্রীর

ইউরোপের অন্যান্য দেশের মত নেদারল্যান্ডসেও করোনাসংক্রমণ দিনে দিনে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে। ১ কোটি ১০ লক্ষ মানুষের এই দেশে বর্তমানে কোভিড ১৯ রোগে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ১০ হাজার ৮৬৬। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৭৭১ জনের।

তবে কেবল নেদরাল্যান্ডস নয় চিনের তৈরি সামগ্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙ্গুল তুলছে ইউরোপের অন্যান্য দেশগুলিও। স্পেন অভিযোগ করেছে চিন করোনা পরীক্ষার যে কিট পাঠিয়েছে তা ত্রূটিপূর্ণ। একই অভিযোগ করেছে আরেক ইউরোপিও দেশ তুরস্কও। ইতালিতেও ব্যাপক সাবধানতা অবলম্বনের পরেও করোনাভাইরাসের প্রকোপের জন্য চিনের দেওয়া চিকিৎসা সরঞ্জামকে দায়ি করা হয়েছে। দেশটির চিকিৎসক ও নার্সদের মধ্যে অত্যাধিক হারে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া সেই দিকেই ইজ্ঞিত দিচ্ছে। ইতিমধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রও চিনের তৈরি যেকোন সামগ্রী পরিহার করতে নির্দেশ জারি করেছে।