একবার দুইবার নয় তিন তিন বার বিশ্বকাপের দলে সুয়োগ দেওয়া থেকে তাঁকে বঞ্চিত করা হয়েছে। প্রথমে বিশ্বকাপের ১৫জনের দলে, তাঁর বদলে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে বিজয় শঙ্করকে। রিজার্ভে রাখা হলেও শিখর ধাওয়ান বা শঙ্করের আঘাতও তাঁর জন্য বিশ্বকাপের দরজা খুলতে পারেনি। গেঁয়ো যোগী হয়ে তিনি ভিখ না পেলেও এবার ভিনদেশ থেকে তাঁকে নাগরিকত্ব দিয়ে খেলানোর প্রস্তাব এল।

মঙ্গলবার আইসল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড তাদের সরকারি টুইটার হ্যান্ডেলে এই স্টাইলিশ ভারতীয় ব্যাটসম্যানকে সেই দেশের স্থায়ী নাগরিকত্ব দিতে চাইল। ভারতীয় জাতীয় দলে রায়ডুর আর কোনও ভবিষ্যত নেই। এদিকে পুরোপুরি একদিনের ক্রিকেট খেলবেন বলে তিনি ঘরোয়া ক্রিকেট থেকেও অবসর নিয়েছেন। এই সুযোগকে কাজে লাগাতে চাইল উত্তর ইউরোপের এই দেশ।

আরও পড়ুন - ফের চোট ধাক্কা, বিশ্বকাপ এবারের মতো শেষ থ্রিডি ক্রিকেটারের! বদলি হিসেবে উঠছে এক আনকোরা নাম

আরও পড়ুন - জয় জয় বিজয় শঙ্কর! অলরাউন্ডারকে নিয়ে গান বাঁধল ভারত আর্মি, দেখুন ভিডিও

আরও পড়ুন - বিজয় শঙ্করের চোটের পিছনে রয়েছে কালা জাদু! লেগেছে থ্রিডি নজর

বিশ্বকাপের ১৫ জনের দলে রায়ডুর বদলে বিজয় শঙ্কররকে নেওয়ার সময় জাতীয় নির্বাচকদের যুক্তি ছিল শঙ্কর অলরাউন্ডার, তাই তিনি থ্রিডি বা ত্রিমাত্রিক ক্রিকেটার। রায়ডু বল করতে পারেন না। এরপরই সরাসরি টুইটারে ক্ষোভ উগরে দিয়ে রায়ডু ব্যঙ্গ করে লেখেন, বিশ্বকাপ দেখার জন্য তিনি থ্রিডি চশমা কিনবেন।

এদিন আইসল্যান্ডের ক্রিকেট সংস্থা তাদের টুইটে এই পুরো বিষয়টাকেই তুলে ধরেছে। তারা আহত বিজয় শঙ্করের বদলে সুযোগ পাওয়া মায়াঙ্ক আগরওয়ালেরও যে পেশাদার ক্রিকেটে ৩টি উইকেট আছে সেই কথা উল্লেখ করে বুঝিয়ে দিতে চেয়েছে মায়াঙ্কও থ্রিডি ক্রিকেটার। তাই থ্রিডি চশমা খুলে রেখে রায়ডুকে টুডি বা দ্বিমাত্রিক চশমা পড়ে আইল্যান্ডের স্থায়ী বাসিন্দা হওয়ার জন্য কী কী নথি জমা দিতে হবে তা ভাল করে পড়ে দেখতে অনুরোধ করেছে তারা।

তারপর সরাসরি তাদের দলে যোগ দেওয়ার অনুরোধ জাননো হয়েছে। আরও বলা হয়েছে 'রায়ডু থিং' অর্থাৎ রায়ডুর খেলা তারা খুব পছন্দ করে। এখন প্রশ্ন হল ৩৩ বছরের রায়ডুকে তারা ক্রিকেটার হিসেবে চাইছেন না কোচ? রায়ডু এর জবাবে কি বলেন, তাই নিয়ে কৌতূহল রয়েছে ক্রিকেট মহলে।