গত বুধবার নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপ ২০১৯-এর সেমিফাইনালে ১৮ রানে পরাজিত হয়ে চিটকে যাওয়ার পর থেকেই ভারতীয় সমর্থকদের একাংশ থেকে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ - প্রত্য়েকের মনেই প্রশ্নটা ঘুরছিল। এড়িয়ে যাওয়ার উপায় নেই। অথচ খুব অস্বস্তিকরও বটে। কিন্তু শনিবার সব ঢাকা চাপা সড়িয়েই দিলেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার ওয়াসিম জাফর।

মুম্বইয়ের এই প্রাক্তন ক্রিকেটার এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশ্ন ছুড়ে দিলেন, 'এটাই কি রোহিত শর্মার হাতে সাদা বলের অধিনায়কত্ব তুলে দেওয়ার সময় নয়?' এখানেই অবশ্য থামেননি মুম্বইয়ের এই প্রাক্তন ওপেনার। বলেছেন ২০২৩ বিশ্বকাপে তিনি ভারতের নেতা হিসেবে রোহিত শর্মাকে দেখতে চান।

অনেকেই মনে করেন বিরাট ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ব্যাটসম্যান হলেও বর্তমান ভারতীয় দলে রোহিত শর্মা কিন্তু তাঁর অধিনায়ক হিসেবে অনেকটাই এগিয়ে। বিশেষ করে ভারতের এই বিশ্বকাপ ব্যর্থতার পর তাঁরা তুলে ধরছেন রোহিতের নেতৃত্বে ভারতের দুর্দান্ত এশিয়া কাপ ২০১৮ জয়ের প্রসঙ্গ।

চলতি বছরের আইপিএল-এও নেতা বিরাটের সময়টা খুব খারাপ কেটেছে। আট বছর ধরে আরসিবির অধিনায়কত্ব করেও একবারও ট্রফি জেতাতে না পারায় সেই সময়ও নেতা বিরাটের প্রবল সমালোচনা হয়েছিল। তাঁর পাশাপাশি রোহিতের আইপিএল-এ নেতা হিসেবে বিপুল সাফল্যের পরিসংখ্যান তুলে ধরে বিশ্বকাপের আগেই কেউ কেউ ভারতের অধিনায়ক বদলের দাবি তুলেছিলেন।

আরও পড়ুন - তিনি দায়িত্বজ্ঞানহীন! দেশে ফিরেই কেন সমালোচনার মুখে হিটম্যান, দেখুন ভিডিও

আরো পড়ুন - ভারতীয় দলের নেতৃত্বে রোহিত শর্মা! টেস্ট দলের অধিনায়ক রাহানে

আরো পড়ুন - দলে বিরাট-রোহিত গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব! কারোর তোয়াক্কা করেন না শাস্ত্রীরা

ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের একাংশও বলে থাকেন, অস্ট্রেলিয়া যেমন শেন ওয়ার্নের মতো দুর্দান্ত নেতাকে কোনও দিন ব্যবহার করেনি, তেমন ভারতও রোহিতের মতো অসাধারণ অধিনায়ককে নষ্ট করছে। বিরাট কোহলি, রবি শাস্ত্রীরা ছুটি কাটিয়ে ফিরলে পরাজয়ের ময়নাতদন্তে বসবেন বলে জানিয়েছেন বোর্ডের কোয়া কমিটির প্রধান বিনোদ রাই।

দল নির্বাচনের ব্যর্থতা নিয়ে সেই পর্যালোচনার বৈঠক উত্তপ্ত হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। কিন্তু, শোনা যায় বিরাটের উপর দারুণ ভরসা বিনোদ রাইয়ের। কাজেই তাঁর উপর কোপ নামার সম্ভাবনা কম। তবে জাপর একবার আগল খুলে দেওয়ার পর আগামী কয়েকদিনে জল কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় তা দারুণ কৌতুহলের বিষয় হতে চলেছে।