একের পর এক বোমা ফাটাচ্ছেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার যুবরাজ সিং। তার মন্তব্য ঘিরে উঠছে বিতর্কের ঝড়। তবুও অকপট যুবি। কয়েক দিন আগেই ভারতের হয়ে দুটি বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক বলেছিলেন, ভারতীয় টিমে সৌরভ গঙ্গোপাধ‌্যায়ের থেকে তিনি যেরকম সাহায‌্য পেয়েছিলেন, সেটা মহেন্দ্র সিং ধোনি কিংবা বিরাট কোহলির থেকে পাননি। যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া তো বটেই তোলপাড় হয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেট। এবার ইনস্টাগ্রাম লাইভে আরও বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন যুবরাজ সিং। এখনকার ভারতীয় দলে সিনিয়রদের প্রতি জুনিয়র ক্রিকেটারদের শ্রদ্ধা কম বলে মনে করছেন যুবরাজ সিংহ। ইনস্টাগ্রামে লাইভ প্রশ্নোত্তর পর্বে ভারতের এক দিনের দলের সহ-অধিনায়ক রোহিত শর্মাকে এমনই বলেছেন তিনি।

আরও পড়ুনঃক্লার্কের সেরা ৭ ব্য়াটসম্যানের তালিকায় ভারতের সচিন ও কোহলি, বাদ স্টিভ স্মিথ

করোনা আতঙ্কের জেরে দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন। গৃহবন্দি অবস্থায় সোশ্যাল সাইটে নানা রকম কাণ্ডকারখানা করতে ব্যস্ত ক্রিকেটাররা। ইনস্টাগ্রাম লাইভ তাদের মধ্যে অন্যতম। তেমনই এক লাইভে বর্তমানে ভারতীয় একদিনের দলের সহঅধিনায়ক রোহিত শর্মাকে যুবরাজ বলেন, “যখন আমি জাতীয় দলে এসেছিলাম বা যখন তুমি এসেছিলে তখন আমাদের সিনিয়ররা খুব শৃঙ্খলাপরায়ণ ছিল। অবশ্য সোশ্যাল মিডিয়া ছিল না বলে অন্য দিকে মন যাওয়ার প্রশ্ন ছিল না। কিছু নির্দিষ্ট আচরণ আমাদেরও করতে হত। তারা যে ভাবে মানুষের সঙ্গে কথা বলত, যে ভাবে মিডিয়ার মুখোমুখি হত তা থেকে শিখতাম আমরা। কারণ, তারা খেলাটার ও ভারতের অ্যামবাসাডর ছিল।” বর্তমানে ভারতীয় ক্রিকেট দলে সেই পরিস্থিতি নেই বলেও  জানান যুবি। তিনি জানিয়েছেন,“তোমাদেরও এটা আমি বলেছিলাম। দেশের হয়ে খেলে ফেলার পর নিজের ইমেজ নিয়ে আরও সচেতন থাকতে হবে। কিন্তু, এখনকার প্রজন্ম তা নয়। এখন তো দলে শুধু বিরাট আর তুমিই সিনিয়র। যাঁরা তিন ফরম্যাটেই খেলে। বাকিরা তো দলে আসা-যাওয়া করে। আমার মনে হয়, এখন দলে খুব কম জনই আছে যাঁরা ভাবমূর্তি নিয়ে সচেতন। সিনিয়রদের প্রতি শ্রদ্ধাও অনেক কমেছে বলে মনে হচ্ছে। এখন যে কেউ যা খুশি বলে দিতে পারে যে কাউকে।”

আরও পড়ুনঃকরোনা মোকাবিলায় গরীব মানুষ ও পথ কুকুরদের মধ্যে খাবার বিলি করলেন ক্রিকেটার শেলডন জ্যাকসন

আরও পড়ুনঃনিজের সমস্ত ট্রফি বিক্রি করে সংগৃহিত অর্থ প্রধানমন্ত্রী ত্রাণ তহবিলে দান করলেন অর্জুন

লোকেশ রাহুল আর হার্দিক পান্ডিয়ার সেই ‘কফি উইথ  করণ’ প্রসঙ্গেও বলেছেন যুবরাজ। বললেন, ‘‘একটা কথা বলতে পারি আমাদের সময় হলে ওই ঘটনা ঘটত না। তখন এরকম কিছু আমরা ভাবতেও পারতাম না। আমাদের মধ্যে সবসময় একটা ভয় থাকত, যদি আমার কিছু ভুল করি, তাহলে সিনিয়ররা এসে বলবে-এই কাজটা ঠিক করিনি। এটা আর করা চলবে না।” এছড়াও দলের তরুণ প্রজন্মের মানসিকতা নিয়ে যুবি বলেছেন, “সচিন এক বার আমাকে বলেছিলেন যে, মাঠে পারফর্ম করতে পারলে সবকিছুই অনুসরণ করবে তোমাকে। আমি একসময় জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে ছিলাম। সেখানে তরুণদের সঙ্গে অনেক কথা হত। আমার মনে হত, ওদের অধিকাংশই টেস্ট ক্রিকেট খেলতে চায় না। কিন্তু, টেস্ট ক্রিকেটই তো আসল ক্রিকেট। ওঁরা কিন্তু ওয়ানডে খেলতেই বেশি ভালবাসে।"। যুবরাজের এই সকল মন্তব্যকে ঘিরেই নতুন করে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। যদিও এই বিষয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও মুখ খোলেননি ভারতীয় দলের অন্যান্য ক্রিকেটাররা। তবে নবীন প্রজন্মের ক্রিকেটারদের যেইভাবে আক্রমণ করেছেন যুবরাজ সিং তাতে ভবিষ্যতে বিতর্কের জল অনেক দুর পর্যন্ত গড়াবে বলেই মনে করছেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা।