এত স্বাস্থ্যবিধি, বিসিসিইয়ের এসওপি, জৈব সুরক্ষা বলয় সব কিছুর পরও রোখা গেল না বিশ্ব মহামারী ভাইরাসের সংক্রমণ। আইপিএল শুরুর আগেই থাবা বসালো মারণ করোনা ভাইরাস। থাবা বসালো প্রতিযোগিতার অন্যতম হাইপ্রোফাইল দল এমএস ধোনির চেন্নাই সুপার কিংসের উপর। জানা গিয়েছে চেন্নাই সুপার কিংসের এক প্লেয়ার সহ মোট ১২ জন প্লেয়ার করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। যেই খবর প্রকাশ্যে আসতেই কার্যত ভূ-কম্পের সৃষ্টি হয়েছে আরব আমিরশাহি থেকে ভারত পর্যন্ত। বিসিসিআই আধাকারিকদের কার্যত মাথায় হাত পড়ে গিয়েছে এই খবরে।

আরও পড়ুনঃকেকেআর ও মুম্বইয়ের অনুশীলন নিয়ে আবুধাবিতে সমস্যা, আসরে নামলেন আইপএল চেয়ারম্যান

দেশের মাটিতে করোনা টেস্ট নেগেটিভ আসার পর দুবাইতে যায় গোটা দল। কঠোর নিয়মের মধ্যেও থাকলেও, দূরে সরিয়ে রাখা গেল না মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে। দলের মোট ১৩ জন করোনা আক্রান্তের মধ্যে রয়েছে একজন প্লেয়ার, বাকিরা সাপোর্ট স্টাফ ও  মিডিয়া টিমের সদস্য। শিবিরে করোনা পজিটিভের খবর যথাযথ বলে জানা গেলেও এখনও করোনা আক্রান্তদের নাম জানা যায়নি। তবে এটা নিশ্চিত, করোনা পজিটিভ সদস্য দুবাইয়ে দলের সঙ্গেই রয়েছেন।  তবে শোনা যাচ্ছে যে পেস বোলার করোনা আক্রান্ত হয়েছেন তিনি ভারতীয় দলের হয়েও প্রতিনিধিত্ব করেছেন।  

আরও পড়ুনঃমরুদেশে প্রথমবার খোলা হাওয়ার কোহলিরা, চুটিয়ে আড্ডা ও ইন্ডোর গেমসে মাতল আরিসিবি

আরও পড়ুনঃআইপিএলের ইতিহাসে কিছু সেরা ইনিংস, যা অমলিন থাকবে ক্রিকেট প্রেমিদের মনে

ইতিমধ্যেই করোনা আক্রান্ত সদস্যদের আইসোলেশনে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। চিকিৎসকরা দেখভাল করছেন তাদের। এখনও পর্যন্ত তাদের সকলের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। যদিও দলের ১৩ জন করোনা আক্রান্ত হওয়ায়য় গোটা দলের অন্দরে ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। একই সঙ্গে আইপিএলের অন্যান্য দল যেখানে ৬ দিনের কোয়ারেন্টাই পর্ব শেষে অনুশীলনে ফিরছে, সেখানে চেন্নাই সুপার কিংস দলকে ফের কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।  উদ্ভূত পরিস্থিতিতে শুক্রবারই চেন্নাইয়ের ক্রিকেটার, সাপোর্ট স্টাফ এবং কর্মকর্তাদের প্রত্যেকের চতুর্থ দফায় করোনা টেস্ট করা হবে। দলের খবের ধোনিও বেশ উদ্বিগ্ন বলে সূত্রের খবর। আইপিএলর শুরুর আগেই বড়সড় বাধার মুখে পড়তে হল ধোনি, সিএসকে সহ বিসিসিআইকে। এই পরিস্থিতিতে আইপিএল আরও চ্যালেঞ্জিং হয়ে গেল বলেই মনে করছেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা।