করোনা আবহেই বিশ্ব জুড়ে ফিরছে ফুটবল। শুরু হয়েছে বুন্দেশলিগা। শুরুর দিন ঘোষমা হয়ে গিয়েছে ইপিএল, লা লিগা ও সিরি এ লিগের। পিছিয়ে থাকতে নারাজ ক্রিকেটও। ইতিমধ্যেই ইংল্যান্ডের ৫৫ জন ক্রিকেটারকে অনুশীলনে ফেরার অনুমতি দিয়েছে ইসিবি। ঘরোয়া ক্রিকেট জুন থেকেই শুরু করেছে অস্ট্রেলিয়া। ভারতেও শুরু হয়েছে বিরাট কোহলিদের মাঠে ফেরার তোরজোর। এবার করোনাভাইরাসের আতঙ্ক কাটিয়ে অনুশীলনে ফিরছেন শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটাররা। ঘরের মাঠে ভারতের বিরুদ্ধে সিরিজ খেলার কথা রয়েছে শ্রীলঙ্কার। যদিও এখনও শীলমোহর পড়েনি সিরিজের অনুমোদনে। তা সত্ত্বেও এবার অনুশীলনে ফিরতে চলেছেন লঙ্কান ক্রিকেটাররা।

আরও পড়ুনঃধোনিই আমার অধিনায়কত্বের প্রেরণা, অকপট স্বীকারোক্তি বিরাটের

করোনা ভাইরাসের দাপটের জেরে গোটা বিশ্বের মতই মার্চ মাসের পর থেকে বল গড়ায়নি দ্বীপরাষ্ট্রের ২২ গজে। ইংল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে হোম সিরিজ বাতিল হয়ে গিয়েছে আগেই। জুলাইয়ে ভারতের আসার কথা শ্রীলঙ্কায়। এতদিন ঘরবন্দি অবস্থাতেই ছিলেন সকল ক্রিকেটার। জুলাইয়ে ভারতের আসার কথা শ্রীলঙ্কায়। সীমিত ওভারের সিরিজে মুখোমুখি হওয়ার কথা দুই প্রতিবেশী দেশের। যা নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকলেও শ্রীলঙ্কা তৈরি থাকতে চাইছে। তার জন্যই সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে অনুশীলন। রবিবার শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট এক বিবৃতিতে জানিয়েছে যে, মোট ১৩ জন ক্রিকেটারকে নিয়ে কলম্বো ক্রিকেট ক্লাবে হবে ১২ দিনের এই আবাসিক শিবির।

 

 

আরও পড়ুনঃআরও শক্তিশালী হয়ে ফিরবে ক্রিকেট,৬-৭ মাসের মধ্যে স্বাভাবিক হবে জনজীবন,মন্তব্য সৌরভের

আরও পড়ুনঃরাজীব গান্ধি খেলরত্নের জন্য মনোনীত হলেন রোহিত শর্মা,অর্জুন পুরষ্কারের জন্য ইশান্ত,শিখর ও দীপ্তি

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের তরফে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, “তিন ফরম্যাটেই থাকেন, এমন ক্রিকেটারদেরই বেছে নেওয়া হয়েছে ১৩ জনের স্কোয়াডে। জোর দেওয়া হয়েছে বোলারদের উপরে। কারণ, প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক ক্রিকেটে ফিরে মানিয়ে নেওয়ার জন্য বোলারদেরই বেশি সময় লাগবে।” ঠিক হয়েছে, ট্রেনিংয়ের দায়িত্বে থাকবেন চার জন। এর মধ্যে কোচ ও সাপোর্ট স্টাফদের ধরা হচ্ছে। ক্রিকেটারদের অনুশীলনের জায়গা ও হোটেলের বাইরে বেরনোর অনুমতি নেই। বলা হয়েছে, সরকারের দেওয়া স্বাস্থ্যবিধি মেনেই চলবে এই শিবির। অনুশীলনে ফেরার খবরে স্বস্তিতে ক্রিকেটাররাও। এবার শুধু অপেক্ষা ২২ গজের লড়াইয়ের।