করোনা ভাইরাস অতিমারীর ফলে থমকে গিয়েছে গোটা বিশ্ব। বিভিন্ন সঙ্কটের মধ্যে দিয়ে কাটছে সাধারণ মানুষের জীবন। অনেকের ক্ষেত্রে তো অন্ন,বস্ত্র,বাসস্থানের সঙ্কটও দেখা দিয়েছে। কোভিড ১৯-এর জেরে ব্যাপক প্রভাব পড়েছে ক্রীড়া বিশ্বেও। সবক্ষেত্রেই দিনের পর দিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। কিন্তু এই সব কিছুই ঠিক হয়ে যাবে। মানুষ আবার আগের মত স্বাভাবিক জনজীবন ফিরে পাবে। বিশ্বের অন্যান্য খেলার মতই আরও শক্তিশালী হয়ে ফিরবে ক্রিকেট। দরকার শুধু একটা প্রতিষেধকের। এমনটাই মনে করেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

আরও পড়ুনঃনেই কোনও সংক্রমণ, লিগ শুরুর আগে স্বস্তিতে ইপিএলে-র ক্লাবগুলি

একটি শিক্ষামূলক অ্যাপে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার সময় সৌরভ বলেন, ‘করোনাভাইরাসের আক্রমণে বিশাল ধাক্কা খেয়েছে সবাই। কিন্তু আমার মনে হয়,সবকিছু আবার আগের অবস্থায় ফিরবে। করোনা ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করার মতো ওষুধ আমাদের হাতে না থাকায় সারা বিশ্ব সাময়িক একটা ঝাঁকুনি খেয়েছে। সমস্যায় পড়তে হচ্ছে সকলকে। তবে আগামী ছয়-সাত মাসে যদি প্রতিষেধক আবিষ্কৃত হয়ে যায়, তখন আবার সবকিছু স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে।’

আরও পড়ুনঃরাজীব গান্ধি খেলরত্নের জন্য মনোনীত হলেন রোহিত শর্মা,অর্জুন পুরষ্কারের জন্য ইশান্ত,শিখর ও দীপ্তি

আরও পড়ুনঃপরপর তিনবার রাজীব গান্ধি খেলরত্নের জন্য নীরজ চোপড়ার নাম মনোনীত করল এএফআই

কোভিড-১৯ অতিমারির জেরে থমকে গিয়েছে ক্রিকেট। আগামী সূচি কী হবে তা নিয়েও চলছে জল্পনা। ক্রিকেট ফিরলে কী কী নয়া নিয়ম হবে  তীব্র জট সৃষ্টি হয়েছে তা নিয়েও। এই অবস্থায় সৌরভ বলছেন,'আমাদের সবার মধ্যে একটা প্রতিরোধ ক্ষমতা আছে। ক্রিকেটও আবার স্বাভাবিক হয়ে যাবে। হ্যাঁ, মানছি সূচিতে কিছু পরিবর্তন হবে। তবে এটাও বলব, ক্রিকেটকে স্বাভাবিক করতে ভারতীয় বোর্ড এবং আইসিসি যা করার করবে।একবার প্রতিষেধক আবিষ্কার হয়ে গেলে কোভিড-১৯ রোগও জন্ডিস বা ফ্লুয়ের মতো হয়ে দাঁডাবে। যা সারানো যায়।' প্রাক্তন ভারত অধিনায়কের তথা বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট মনে করেন,'ক্রিকেট খুব শক্তিশালী হয়েই ফিরবে।  ক্রিকেটারদের কিছু প্রতিবন্ধকতার মুখে পড়তে হবে। বাড়তি কিছু নিয়ম মেনে চলতে হবে। ঘন ঘন ডাক্তারি পরীক্ষার মুখে পড়তে হবে ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফদের। তবে তাতে খেলাটায় কোনও প্রভাব পড়বে না।'