সারা পৃথিবী জুড়ে স্তব্ধ সবরকম ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। ক্রিকেটেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ সারা বিশ্বজুড়ে মহামারীর আকার ধারণ করেছে। এই অবস্থায় একঘেয়েমি কাটাতে চলুন ঘুরে আসা যাক ক্রিকেট ইতিহাসের পাতায়। আজকের দিনটি ভারতীয় ক্রিকেটের ইতিহাসে একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দিন। ইতিহাস বলছে একবিংশ শতাব্দীর প্রথম দশকে ভারতীয় ক্রিকেটের অন্যতম সেরা ওপেনার চার বছরের ব্যবধানে আজকের দিনেই খেলেছিলেন নিজের জীবনের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য দুটি ইনিংস। 

আরও পড়ুনঃ'এটা একটা অসাধারণ ফিফটি', রায়নার অনুদান প্রসঙ্গে বললেন প্রধানমন্ত্রী

১৩ বছর আগে আজকের দিনেই ইতিহাসের পাতায় পাকাপাকিভাবে নিজের জায়গা করেন বীরেন্দ্র সেওবাগ। মুলতানে পাকিস্তানের ডেরাতে দাঁড়িয়ে তাদের মাটিতেই করেন নিজের জীবনের প্রথম ত্রিশতরান। ৩০৯ রান করে পাক পেসার মহম্মদ সামির বলে আউট হন তিনি। তার ইনিংসটি সাজানো ছিল ৩৯ টি চার এবং ৬ টি ছক্কা দিয়ে। পাক বোলারদের রীতিমতো তুলোধনা করে ত্রিশতরান করেন তিনি। সেই ইনিংসে তার স্ট্রাইক রেট ছিল ৮২.৪০। টেস্ট ক্রিকেটের দিক দিয়ে দেখতে গেলে যা অভূতপূর্ব। 

আরও পড়ুনঃফের করোনা মোকাবিলায় ৩২ কোটি টাকা দিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো

আরও পড়ুনঃকরোনা যুদ্ধে ২৫ কোটি টাকা দান অক্ষয় কুমারের, রিয়েল লাইফ হিরো বললেন হার্দিক পান্ডিয়া

২৯শে মার্চের সাথে তার সখ্যতা অবশ্য এখানেই শেষ হয়নি। ২০০৮ সালে আজকের দিনেই সেওবাগ এমন একটি কীর্তি গড়েন যা তার পাকিস্তানের কীর্তিকেও ম্লান করে দিয়েছিল। দেশের মাটিতে চেন্নাইয়ে আবারও ত্রিশতরান করেন বিরু। মাখায়া এন্টিনির বলে যখন তিনি আউট হন তখন তার নামের পাশে রানসংখ্যা ৩১৯। নিজের রেকর্ড নিজেই ভাঙেন বিরু। এটিই এখনও অবধি কোনও ভারতীয়র টেস্ট ম্যাচে করা সর্বাধিক রান। একই সাথে তিনি গড়েন আরও একটি রেকর্ড। তাকে নিয়ে আজ অবধি মাত্র চারজন ব্যাটসম্যান আজ অবধি টেস্টে দুবার ত্রিশতরান করেছেন। সেওবাগ কে বাদ দিলে তারা হলেন ডন ব্র্যাডম্যান, ব্রায়ান লারা এবং ক্রিস গেইল।