সালটা ২০১৭। পুণেতে ভারত অস্ট্রেলিয়া টেস্ট। প্রথম দিন থেকে বল ঘুড়তে শুরু করেছিল। পাঁচ দিনের টেস্ট শেষ হয়ে গিয়েছিল মাত্র তিন দিনে। মোট ৩১টি উইকেট পেয়েছিলেন দুই দলের স্পিনাররা। টেস্ট ম্যাচের এই অবস্থা দেখে আইসিসিও পুণের ২২ গজকে খুব খারাপ বলে বর্ণনা করেছিল। ২০১৭ পর এবার ২০১৯। আবার একটি টেস্ট ম্যাচ পুণেতে। আবার তিন দিনে শেষ হয়ে যাওয়ার মত উইকেট হবে না তো? সেটাই এখন আশঙ্কা করছে ভারতীয় ক্রিকেট মহল। 

আরও পড়ুন - বিরাট বোলারদের অধিনায়ক, বলছেন শোয়েব আখতার

২০১৭ সালের পর থেকে পুণের পিচ কিউরেটর পান্ডুরঙ্গ সালগাঁওকরের জীবনে অনেক বদল হয়েছে। ২০১৭ সালেই ভারত নিউজিল্যান্ড একদিনের ম্যাচের আগে পান্ডুরঙ্গ স্টিং অপারশেনে ধরা পড়েন। পিচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে। তারপর আইসিসি সালগাঁওকরকে ছয় মাসের জন্য নির্বাসিত করেছিল। নির্বাসন পর্ব কেটে গেলে আবার তাকে পিচ কিউরেটরের পদে ফিরিয়ে আনে। বলা যায় ভারত দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্ট হতে চলেছে পান্ডুরঙ্গ সালগাঁওকরের কাছে অগ্নি পরীক্ষা। 

আরও পড়ুন - ক্রিকেট থেকে ছুটি, মুম্বইতে ফুটবল মাঠে ধোনি, সঙ্গে লিয়েন্ডার পেজ

উইকেট নিয়ে এখন থেকে কোনও মন্তব্যে যেতে নারাজ পান্ডুরঙ্গ সালগাঁওকর। মাঠ নিয়েও কোনও সমস্যা নেই। বৃষ্টির পূর্বাভাস থাকলেও সেটা ম্যাচ পন্ড করে দিতে পারে এমন আশঙ্কা করছেন না কেউই। মেঘলা আকাশ সঙ্গে ঠান্ডা বাতাস, পুণের পরিবেশ পেস বোলারদের সাহয্য করবে। কিন্তু সেই সুযোগ কি তারা পাবেন? নাকি আবারও স্পিনাররাই হয়ে উঠবেন পুণে টেস্টের হিরো। 

আরও পড়ুন - ছবির শুটিং শেষ, ৮৩’র দলকে পার্টি দিলেন দীপিকা