ভক্তের আবেগ প্রবণ ভালোবাসার জেরে বিপাকে টিম ইন্ডিয়ার ৫ জন প্লেয়ার। তালিকায় রয়েছে রোহিত শর্মা, ঋষভ পন্থ, শুভমন গিল, পৃথ্বী শ ও নবদীপ সাইনি।  শুক্রবার মেলবোর্নে রোহিতদের এক রেস্তোঁরায় খেতে যান এই ক্রিকটাররা। সেখানে নভলদীপ সিং নামে ব্যক্তি তাদের চিনে ফেলেন। আবেগ সামলাতে না পেরে তাদের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন। এছাড়াও দাবি করেন যে ভারতীয় ক্রিকেটারদের খাওয়ার বিলও নাকি মিটিয়েছেন তিনি। সেই বিলের ছবিও শেয়ার করেন তিনি। একইসঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্টে নভলদীপ লেখেন ঋষভ পন্থ তাকে জড়িয়ে ধরেন।

 

আরও পড়ুনঃ ভক্তের ভালোবাসার জেরে আইসোলেশনে ভারতীয় ক্রিকেটাররা, বায়ো বাবল ভাঙার অভিযোগে শুরু তদন্ত

এরপরই তৈরি হয় যাবতীয় বিতর্ক। অভিযোগ ওঠে জৈব সুরক্ষা বলয় ভেঙে বেরিয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। এমনকী ঋষভ পন্থ বাইরের কোনও ব্যক্তিকে জড়িয়ে ধরেছে এই তথ্য সামনে আসার পর সেই বিতর্ক আরও জোরদার হয়।  বিসিসিআই ও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া বিষয়টি খতিয়ে দেখছে বলে শোনা যায়। কেননা, কোভিট প্রোটোকল অনুযায়ী একজন বাইরের ব্যক্তির সঙ্গে সাক্ষাৎ কঠোরভাবে নিষিদ্ধ। প্রিয় তারকারা বিপাকে পড়ছে দেখে নিজেক বক্তব্যও বদল করেন নভলদীপ। তিনি ট্যুইটে জানান,'উত্তেজনার বশে বলে ফেলেছি পন্থ আমাকে জড়িয়ে ধরেছিলেন। আসলে ক্রিকেটাররা আমাদের সঙ্গে সামাজিক দূরত্ববিধি বজায় রাখেন।' 

 

 

নভলদীপের বক্তব্য পরিবর্তনের পরও সমস্যা কমেনি ভারতীয় ক্রিকেটারদের। বায়ো বাবল ভাঙার অভিযোগে রোহিত, পন্থ, গিলদের দলের থেকে আলাদা আইসোলেশনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে অনুশীলনে অংশ নেওয়ার ক্ষেত্রে কোনও বাধা নেই। তবে অনুশীলনেও তাদের দলের অন্যান্য প্লেয়ারদের সঙ্গে দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। বিসিসিআই ও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার তরফে তদন্ত শুরু হয়েছে, ভারতীয় ক্রিকেটাররা বায়ো-বাবল উপেক্ষা করেছেন কিনা। ফলে সিডনি টেস্ট শুরুর আগে সমস্যা বাড়ল টিম ইন্ডিয়ার।

আরও পড়ুনঃচিকিৎসার সময় 'ফাইটার সৌরভ', 'দাদা'-র লড়াকু মানসিকতার প্রশংসা ডাক্তারদের