সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড প্রেসিডেন্ট পদে থেকে একাধিক ব্র্যান্ডের বিজ্ঞাপন করায় প্রশ্নে উঠেছে বোর্ডের অন্দরেই। স্বার্থের সংঘাতের বিষয়টিও উত্থাপন করেছেন একাধিক বিসিসিআই কর্তা। বৃহস্পতিবার বোর্ডের বার্ষিক সাধারণ সভাও বিষয়টি নিয়ে সরগরম হওয়ার সম্ভাবনা ছিল। যদিও এজিএমে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা ওঠেনি। তবে বড়দিনের সকালে ট্যুইটারে বোর্ড সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের একটি পোস্টকে কেন্দ্র করে ফের দানা বেঁধেছে বিতর্ক।

বড় দিনের সকালে সবাই যখন ক্রিসমাসের আনন্দে মাততে প্রস্তুত, তখনই নিজের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে একটি বেসরকারি মাস্ক কোম্পানির হয়ে বিজ্ঞাপন বা ব্র্যান্ডকে এনডোর্স করতে দেখা যায় সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে। বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট তার পোস্টের ক্যাপশনে লেখেন, আমার পছন্দের সুরক্ষার প্রচারে যুক্ত হতে পেরে আমি গর্বিত। সৌরভের সইসহ এই মাস্ক সীমিত সংখ্যাতেই পাওয়া যাচ্ছে বলে লেখেন তিনি নিজেই। এই মাস্কের বিশেষত্বও সম্পর্কেও সৌরভ লেখেন যে এই বিশেষ মাস্ক কাচা যায় ও ৬ মাস ব্যবহার করা যায়।

এই বিজ্ঞাপন ঘিরেই নতুন করে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। সৌরভের বিরুদ্ধে স্বার্থের সংঘাত ও একাধিক ব্র্যান্ড এনডোর্সমেন্ট নিয়ে বোর্ডের একাংশের অভিযোগ দীর্ঘদিনের। আইপিএলের টাইটেল স্পনসর হয়েছে ‘ড্রিম ইলেভেন’। তারপরেই সৌরভ সম্পূর্ণ বিরোধী ব্র্যান্ড ‘মাই সার্কল ১১’-এর সঙ্গে চুক্তি করেছেন। একই কথা খাটছে ভারতীয় দলের জার্সি স্পনসর ‘বাইজুস’-র ক্ষেত্রেও। বাইজুস একটি শিক্ষামূলক অ্যাপ। কিন্তু সৌরভ অন্য একটি শিক্ষামূলক অ্যাপের বিজ্ঞাপন করেন। ফলে এবার দেখার বিষয় এই মাস্কের বিজ্ঞাপন নিয়ে নতুন করে কোনও জলঘোলা হয় কিনা।