v

১৯৮৩-র পর ২০১১। ৩১ বছর পর মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে ফের ক্রিকেটে বিশ্বকাপ জিতেছিল ভারত। ফাইনালে দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েছিল মেন ইন ব্লুরা। কিন্তু সম্প্রতি ২০১১ বিশ্বকাপ নিয়ে চাঞ্চল্য অভিযোগ করেন তৎকালীন ক্রীড়ামন্ত্রী মাহিন্দানন্দ আলুথগামাগে। তার অভিযোগ, ২০১১ সালের বিশ্বকাপ ভারতের কাছে বিক্রি করে দিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। অর্থাৎ ম্যাচেস গড়াপেটা হয়েছিল। খোদ শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন ক্রীড়া মন্ত্রীর অভিযোগে হইচই পড়ে যায় ক্রিকেট বিশ্বে। ক্রীড়ামন্ত্রীর অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কার দুই কিংবদন্তি ক্রিকেটার মাহেলা জয়বর্ধনে ও কুমার সঙ্গাকারা। জয়বর্ধনে সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন, ‘সামনেই নির্বাচন। তাই সার্কাস শুরু হয়ে গিয়েছে।’ যদিও  সেই অভিযোগকে একেবারেই হালকাভাবে নেয়নি দ্বীপরাষ্ট্রের সরকার। শুরু হয়ছে ফৌজদারি তদন্ত। সেই তদন্তের আওতাতেই এবার শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন তারকা প্লেয়ার ২০১১ সালের বিশ্বকাপ ফাইনালের সময় শ্রীলঙ্কার নির্বাচকমণ্ডলীর চেয়ারম্যান ছিলেন অরবিন্দ ডি সিলভাকে জিজ্ঞাসাবাদ করল পুলিস।

আরও পড়ুনঃএকইদিনে ভাইরাল গঙ্গোপাধ্যায় পরিবার,নেট দুনিয়ার মন জয় করলেন সৌরভ-ডোনা-সানা

১৯৯৬ সালে শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপ জেতার নেপথ্যে বড় ভূমিকা ছিল ডি সিলভার। সে বার ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচের সেরা হয়েছিলেন তিনি। সেই অরিবন্দ ডি সিলভাকেই এক নয়, দুই নয়, টানা ছয় ছণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করল পুলিস। এই অভিযোগ সামনে আসার পরই অরিবন্দ ডি সিলভা নিজে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড ও আইসিসিকে তদন্তের কথা বলছিলেন। তাঁর মতে,'মিথ্যে বলার পরও লোকে দিব্যি ছাড় পেয়ে যাচ্ছে, এমনটা সব সময় হতে পারে না। এখনই এটা নিয়ে তদন্তের অনুরোধ করছি সবাইকে।' সূত্রের খবর, পুলিসি জিজ্ঞাসাবাদে পূর্ণ সহযোগিত করেছেন অরিবিন্দি ডি সিলভা। প্রয়োজনে আরও সহযোগিতা করতে রাজি  বলে জানিয়েছেন শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন তারকা ক্রিকেটার। একইসঙ্গে বিসিসিআই যদি কোনও তদন্ত করে সেখানে সহযোগিতা করবেন বলে জানিয়েছেন ডি সিলভা। প্রয়োজনে এই মহামারীর সময়তও ভারতে গিয়ে তদন্তে সহযোগিতা করতেও তার কোনও আপত্তি নেই বলে জানিয়েছেন অরিবিন্দ ডি সিলভা।

আরও পড়ুনঃজর্জিনার রিং ফিঙ্গারে জ্বলজ্বল করছে হীরের আংটি,তাহলে কি আসন্ন রোনাল্ডোর বিয়ে

আরও পড়ুনঃমেসির ৭০০ গোলের নজির, ফের পয়েন্ট নষ্ট বার্সেলোনার