অধরাই রয়ে গেল ভারতীয় মহিলা দলের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন। ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৮৫  রানে হারতে হল হরমনপ্রীত কউরের দলকে। বিশ্বকাপ ফাইনালের মত মেগা ম্যাচে টস হারের খেসারত দিতে হয় ভারতীয় মহিলা দলকে।  ফাইনালে নিজের স্বভাবজাত ডনিমনেটিং ক্রিকেট বজায় রাখল অজিরা। রবিবার ফাইনালে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক মেগ ল্যানিং।  নির্ধারিত ২০ ওভারে  ১৮৪ রান করে ব্যাগি গ্রিন ব্রিগেড। জবাবে ভারতের ইনিংস শেষ ৯৯ রানে।  

আরও পড়ুনঃপুরুষদের তুলনায় নগন্য ভারতীয় মহিলা ক্রিকেটারদের আয়, সময় এসেছে মানসিকতার পরিবর্তনের

ওপেনিং করতে নেমে বিধ্বংসী ব্যাটিং করেন দুই অজি ওপেনার অ্যাশলে হেলি ও বেথ মুনি। হেলির আক্রমণাত্বক ব্যাটিংয়ের সামনে দাঁড়াতে পারেনি কোনও ভারতীয় বোলারই। ৩৯ বলে ৭৫ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেন অস্ট্রেলিয়ার উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান। গোটা ইনিংসে মোট ৫টি ছয় ও ৭টি চার মারেন হেলি। অপরদিকে তাকে যোগ্য সঙ্গত দেন বেথ মুনি। অর্ধশতরান করেন তিনিও। দলের ১১৫ রানের মাথায় রাধা যাদবের বলে আউট হন হেলি। হেলির পর ক্রিজে নামেন অজি অধিনায়ক। যদিও বেশিক্ষণ টিকতে পারননি মেগ ল্যানিং।  ব্যক্তিগত ১৬ রানে দীপ্তি শর্মার শিকার হন তিনি। দীপ্তির ভেলকির কাছে পরাস্ত হন গার্ডনারও। ব্যক্তিগত ২ রানের মাথায় তাকে প্যাভেলিয়বনের রাস্তা দেখান ভারতীয় অলরাউন্ডার। যদিও নিজের ইনিংস চালিয়ে যেতে থাকেন মুনি।  অপরদিকে পুণমের লেগ স্পিনের যাদুর কাছে হার মেনে ব্যাক্তগত ৪ রানে আউট হন হেইনস। ইনিংস শেষে ব্যাক্তিগত ৭৮ রানে নট আউট থাকেন মুনি। হেলি ও মুনির ইনিংসের সৌজন্যে ভারতকে ১৮৫ রানের চ্যালেঞ্জ দেয় অস্ট্রেলিয়ার।

আরও পড়ুনঃপুরনো মেজাজই সচিন-সেওয়াগ জুটি, ওয়াংখেড়েতে ক্যারেবিয়ানদের হারাল ইন্ডিয়া লেজেন্ডস

আরও পড়ুনঃনিরেপক্ষ ভেন্যুতে হতে পারে এশিয়া কাপ, পরোক্ষভাবে বিসিসিআইয়ের দাবি মানল পিসিবি

রান তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই উইকেটে হারিয়ে চাপে পড়ে যায় ভারতীয় দল। ইনিংসের প্রথম ওভারেই স্কাটের বলে ব্যক্তিগত ২ রানে আউট হন শেফালি ভার্মা। দলের ৮ রানের মাথায় দ্বিতীয় উইকেট পড়ে ভারতের। জনাসেনের বলে খাতা না খুলেই প্যাভেলিয়নে ফিরে য়ান রড্রিগেজ। অজি অ্যাটাকের সামনে বেশক্ষণ দাঁডাতে পারেননি স্মৃতি মন্দনাও। ব্যক্তিগত ১১ রানে মলিনেক্সের শিকার হন তিনি। গোটা  বিশ্বকাপের খারাপ ফর্ম ফাইনালেও অব্যাহত থাকে ভারত অধিনায়ক হরমনপ্রীত কউরের। ৪ রান করে জনাসনের বলে আউট হন তিনি। কিছুটা লড়াই দেওয়ার চেষ্টা করেন ভেদা কৃষ্ণামূর্তি ও দীপ্তি শর্মা। যদিও ১৯ রানের মাথায় কিমিন্সের বলে জনাসনের হাতে ক্যাচ আউট হন কৃষ্ণামূর্তি। ব্যক্তিগত ৩৩ রানে নিকোলা ক্যারের বলে আউট হন দীপ্তি শর্মা। দীপ্তী শর্মার আউটের পর ভারতের হার ছিল শুধু সময়ের অপেক্ষা। স্কাটের বলে আউট হন শিখা পাণ্ডে। নিজের ১৮ রানের মাথায় স্কাচের শিকার হন রিচা ঘোষ। রাধা যাদবকে আউট করেন জনাসেন। পুণম যাদবকে আউট করে  ৯৯ রানে ভারতের ইনিংস শেষ করেন স্কাট। ফলে ৮৫ রানে ভারতকে হারিয়ে পঞ্চমবার টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ ঘরে তুলল অজি ব্রিগেড। একইসঙ্গে ফাইনালে পৌছে আরও একবার অধরাই থেকে গেলভারতীয় মহিলা দলের বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন।