কয়েক বছর আগে ক্রিকেট ফুটবলের অকটি নিয়মকে ২২ গজে এনে ফেলেছিল। প্রথম ১১’র একজন ক্রিকেটার কে রিজার্ভ বেঞ্চের ক্রিকেটার দিয়ে পরিবর্তন করা যেত। সেই নিয়মের নাম ছিল সুপার সাব। এবার সেই সুপার সাব প্রথাকেই একটু ঘসে মেজে আসরে নামাতে চাইছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। সেই নিয়মের নাম দেওয়া হয়েছে পাওয়ার প্লেয়ার। আগামী বছর আইপিএল থেকে এই নিয়ম আসরে নিয়ে আসার পরিকল্পনা ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের। বোর্ডের সিদ্ধান্ত পাঠানো হয়েছে আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের কাছে। তাদের সম্মনি পাওয়া গেলেই ২০২০ সালের আইপিএলের দেখা যাবে নতুন এই নিয়ম। 

আরও পড়ুন - ৮.৫ কিমি পাহাড়ে চড়ে বাছুর খাওয়াচ্ছেন, জন্মদিনে অনুষ্কাকে নিয়ে নির্জনে বিরাট, দেখুন ছবি

কিন্তু প্রশ্ন কী এই নতুন পাওয়ার প্লেয়ার নিয়ম। বোর্ডের প্রস্তাব অনুয়ায়ী, একটি ওভার শেষে বা একটি উইকেটের পতনের পর রিজার্ভ বেঞ্চ থেকে একজন ক্রিকেটারকে নিয়ে আসা যাবে প্রথম দলে। ধরা যাক ২০২০ আইপিএলের ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে কেকেআর ও মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সে। কলকাতা ব্যাটিং করার সময় তাদের একটি উইকেট পড়ল, এমন সময় পাওয়ার প্লেয়ার নিয়ম লাগু করে রিজার্ভ বেঞ্চে থাকা এক ক্রিকেটারকে ব্যাটিং করতে পাঠাতে পারবেন দীনেশ কার্তিকরা। আবার ওভারে শেষে মুম্বাইও একজন ক্রিকেটারকে বেঞ্চে বসিয়ে অন্য আরেক ক্রিকেটারকে মাঠে নামাতে পারেব। এ ক্ষেত্রে প্রতি দলকে ঘোষণা করতে হবে প্রথম ১৫ জন ক্রিকেটারের তালিকা। সেই তালিকা থেকেই প্রথম ১১’র একজন ক্রিকেটারের বদলে বেঞ্চে থাকা বাকি চারজনের মধ্যে থেকে একজনকে বেছে নেওয়া যাবে। পাওয়ার প্লেয়ার নিয়ম অনুযায়ী একজন বাড়তি বোলার বা একজন বাড়তি ব্যাটসম্যান খেলানোর সুযোগ পাবে দলগুলো। 

আরও পড়ুন - ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে হাড় হিম করা চোট, প্রায় দু টুকরো হয়ে গেল আন্দ্রের পা

কয়েক বছর আগে আইসিসি ক্রিকেটে নিয়ে এসেছিল সুপার সাব নিয়ম। প্রথম ১১ জন ক্রিকেটারের পাশাপাশি ১২ তম সদস্য হিসেবে থাকতেন সুপার সাব ক্রিকেটার। প্রয়োজন অনুযায়ী তাঁকে ব্যাটিং বা বোলিংয়ের ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারত দলগুলো। কিন্তু সেই নিয়ম বেশি দিন থাকেনি। কারণ খুব বেশি সফল্যের মুখ দেখতে পারেনি ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থার সেই নিয়ম। এবার সেই সুপার সাব নিময়কেই কিছুটা বদলে পাওয়ার প্লেয়ার নিয়মের আমদানী করতে চাইছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। বিসিসিআই এই প্রস্তাব পাঠিয়েছে আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের কাছে। সেখানে সব দলগুলোর সঙ্গে কথা বলার পরই এই পাওয়ার প্লেয়ার নিয়ন নিয়ে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। 

আরও পড়ুন - প্রতি বছর হবে দিন রাতের টেস্ট, সৌরভের কড়া চ্যালেঞ্জ ঘিরে জল্পনা