মরুদেশে পড়তে চলেছে আইপিএলের ঢাকে কাঠি। প্রতীক্ষা আর মাত্র কিছু সময়ের। করোনা আবহে আইপিএলের নিয়ম কানুন বদলালেও আইপিএল নিয়ে ক্রিকেট প্রেমিদের আবেগে কোনও ঘাটতি। কিন্তু দুঃখ একটাই মাঠে গিয়ে এবার আর প্রিয় দল বা প্রিয় তারকাদের উৎসাহ বাড়াতে পারবেন না সমর্থকরা। করোবার কারণে এবার থাকছে চিয়ার লিডাররাও। ফলে মাঠের পরিবেশ আগের থেকে পুরোটাই আলাদা হবে। যা নিয়ে আক্ষেপ রয়েছে ক্রিকেটারদেরও। তাই ক্রিকেটারদের কথা ভেবে ও টিভির পর্দায় দর্শকদের কথা ভেবে অভিনব ব্যবস্থা নিতে চলেছে বিসিসিআই ও আইপিএল কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুনঃ'আপনার জীবন অনুপ্রেরণা জোগায়', জন্মদিনে মোদীকে শুভেচ্ছা বার্তা সচিন, বিরাট সহ ভারতীয় ক্রিকেটাররা

মাঠের পরিবেশকে আগের মতো রাখতে এবার প্রযুক্তির সাহায্য নিতে বিসিসিআই। যন্ত্রের মাধ্যে মাঠেই সৃষ্টি করা হবে কৃত্রিম শব্দ ধ্বনি। একরকম চিৎকার নয় প্রতি দলের জন্য তাদের সমর্থকের চিৎকার আলাদা করে বাজবে মাঠে। শুধু দলগতভাবে প্রিয় ক্রিকেটারদের কথা মাথায় রেখেও তাদের সমর্থকদের চিৎকারের ব্যবস্থা করা হচ্ছে মাঠে। যারফলে বিরাট-রোহিত-রাসেল- ওয়ার্নাররা বিধ্বংসী ইনিংস খেললে তাদের নামেও মাঠে হবে ধ্বনি। করোনা পরিস্থিতিতে যেহেতু মাঠে থাকছে না চিয়ার লিডার। তাই সম্প্রচারকারী টেলিভিশন সংস্থা গ্রাফিক্স প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে সেই নস্টালজিয়া ফিরিয়ে আনতে পারে। টিভির পর্দায় ভেসে উঠতে পারেন চিয়ারলিডাররা।  ম্যা চলাকালীন গ্রাফিক্স প্রেজেনটেশনেও আলাদা জোর দেওয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুনঃআইপিএলে সঞ্চালিকার ভূমিকায় বিশ্বখ্যাত নেরোলি মেডোজ, উড়তে চলেছে ক্রিকেট প্রেমিদের রাতের ঘুম

প্রযুক্তির আশ্রয়ে বিসিসিআই যথাসাধ্য চেষ্টা করছে মাঠের সেই মায়াবী পরিস্থিতি ক্রিকেটারদের ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য। আইপিএলের প্রথম পর্বে মাঠে দর্শক প্রবেশের কোনও অনুমতি এখনও পর্যন্ত নেই।  তবে বিসিসিআইয়ের পরিকল্পনা রয়েছে প্রতিযোগিতার পরবর্তী পর্বে  মাঠে ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ দর্শক প্রবেশের ব্যবস্থা করা। এই বিষয়ে ইতিমধ্যেই আরব আমিরশাহির প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা চলছে বিসিসিআই কর্তাদের। তবে উইরোপীয় ফুটবলের আদলে এবার আইপিএলে স্টেডিয়ামে থাকবে ভার্চুয়াল দর্শকদের আওয়াজ। বিসিসিআই এই উদ্যোগে খুশি সকলেই।

আরও পড়ুনঃকখনও লাল শাড়ি, কখনও কালো কুর্তা, হট ও বোল্ড লুকসে নেট দুনিয়ায় ঝড় তুলছেন হাসিন জাহান