সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফির ম্যাচে মেঘালয়ার বিরুদ্ধে বড় জয় পেল বাংলা। চলতি বছরের মুস্তাল আলি ট্রফির ম্যাচে পর পর দুই ম্যাচে জয় পেল অভিমন্যু ঈশ্বরণের দল। বিজয় হাজারে ট্রফিতে মরশুমের শুরুটা ভালো হয়নি বাংলা দলের। তবে এবার মুস্তাক আলি ট্রফিতে শুরুটা ভালো করল বাংলা দল। তবে আগামী ম্যাচে বড় দলগুলোর বিরুদ্ধে আরও ভালো করতে মুখিয়ে আছে বঙ্গ ব্রিগেড। সোমবার মেঘালয়ার বিরুদ্ধে ৫৫ রানে জয় পেল বাংলা দল। একই সঙ্গে এই ম্যাচে ব্যাটে বল সেভাবে নিজেকে মেলে ধরার সুযোগ না পেলেও ফিল্ডিং করে দুরন্ত ক্যাচ ধরলেন ঋত্বিক রায়চৌধুরি।

রানিদের সুখ্যাতি দিলীপ তিরকের মুখে, বিশেষ সাক্ষাৎকারে প্রাক্তন অলিম্পিয়ান পর্ব-২...

সোমবার মেঘালয়ার বিরুদ্ধে প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ২০৭ রান করে বাংলা দল। ৪ উইকেট হারিয়ে এদিন প্রথমে ব্যাট করে রানার পাহাড় গড়েন অভিমন্যুরা। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে বড় রানের ইনিংস খেলেন ওপেনার বিবেক সিং। ওপেন করতে নেমে মাত্র ২৯ রানে ফিরে গেলেও, এদিন ব্যাট হাতে তিন নম্বরে নেমে দুরন্ত ইনিংস খেলেন অধিনায়ক অভিমন্যু ঈশ্বরণ। ৩২ বলে ৬১ রান করেন অভিমন্যু। পাশাপাশি এদিন ৪৫ রান করেন মনোজ তিওয়ারিও। শেষে বাংলার হয়ে ৫ রান ও ১ রান করে প্রথম ইনিংসে অপরাজিত থাকেন শাহবাজ আহমেদ ও ঋত্বিক রায়চৌধুরি। সেই সঙ্গে মেঘালয়াকে ২০৮ রানের লক্ষ্য দেয় অরুণ লালের দল।

আরও পড়ুন, ভারতীয় দলে ৪ নম্বরে এবার দেখা যেতে পারে শ্রেয়াস আইয়ারকে

অপরদিকে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ১৫৩ রানেই শেষ হয়ে যায় মেঘালয়ার দলের। ব্যাট হাতে বাংলার বিরুদ্ধে ভালোই লড়াই করেন মেঘালয়ার ব্যাটসম্যানরা। ব্যাট হাতে ৪৫ রান করে অপরাজিত থাকেন সঞ্জয় যাদব। একই সঙ্গে ৩৯ রান করে অপরাজিত থাকেন মার্ক ইঙ্গটি। মাঝে ২৮ রান করেন মেঘালয়ার রবি তেজা। তবে ভালো ব্যাট করলেও সোমবার বল হাতে সেভাবে মেঘালয়া দলকে জব্দ করতে পারেননি বাংলার বোলাররা। বল হাতে দুটি করে উইকেট নেন বাংলার ঈশাণ পোড়েল ও অর্ণব নন্দী। সোমবার মেঘালয়ার বিরুদ্ধে উইকেট পাননি সায়ন ঘোষ ও আকাশদীপরা।