ভারতের মাটিতে হতে চলা পরপর দুটি বিশ্বকাপ নিয়ে চরমে পৌছাল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড ও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের দ্বন্দ্ব। সম্প্রতি বিশ্বকাপ নিয়ে বিসিসিআইয়ের উপর চাপ সৃষ্টির পাশাপাশি এখন থেকেই বিভিন্ন ধরনের দাবিদাওয়া জানাতে শুরু করে দিয়েছে পিসিবি। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সিইও ওয়াসিম খান জানান,'ভারতে দুটো বিশ্বকাপ হওয়ার কথা। আমরা আইসিসিকে জানিয়ে দিয়েছি বিসিসিআইকে লিখিত আশ্বাস দিতে হবে যে, আমরা ওখানে গিয়ে ভিসা-ক্লিয়ারেন্স সংক্রান্ত কোনও সমস্যায় পড়তে চাই না।' একইসঙ্গে পাকিস্তান দলের নিরাপত্তা নিয়েও সুর চড়ান পাক বোর্ডের সিইও। বলেন, লিখিত নিশ্চয়তা পেলে তবেই ২০২১ টি-২০ বিশ্বকাপ ও ২০২৩ ওয়ান ডে বিশ্বকাপ খেলতে ভারতে দল পাঠাবে পাক বোর্ড।

আরও পড়ুনঃবিসিসিআইকে হুঁশিয়ারী পিসিবির, ভারতে আয়োজিত বিশ্বকাপে পাক দলের নিরাপত্তা নিয়ে দিতে হবে লিখিত গ্যারান্টি

চুপ করে বসে থাকার পাত্র যে বর্তমান বিসিসিআই নয়, তা হয়তো বুঝতে পারেনি পাক বোর্ড। বর্তমান বিসিসিআই প্রেসিডেন্টের নামও যে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় তাও হয়তো ভুলে গিয়েছেন পাকবোর্ডের কর্তারা। পিসিবিকে এবার পালটা আগ্রাসী জবাব দিল বিসিসিআই।এক বিসিসিআই কর্তা ওয়াসিম খানের মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘পিসিবি কি লিখিত নিশ্চয়তা দিতে পারবে যে, পাকিস্তান সরকার তাদের দিক থেকে ভারতের বিরুদ্ধে কোনও রকম হিংসাত্মক কার্যকলাপে মদত দেবে না? ভারতের মাটিতে কোনও রকম সন্ত্রাসবাদী হামলা চালানো হবে না পাকিস্তানের তরফে কিংবা পুলওয়ামার মতো কোনও ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটাবে না তারা, এই মর্মে কি কোনও নিশ্চয়তা দিতে পারবে পাক বোর্ড?’

আরও পড়ুনঃএবার করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত জোকভিচের কোচ গোরান ইভানিসেভিচ

আরও পড়ুনঃএবার ক্রিকেট কোচ হতে চলেছেন ধোনি,তাহলে কি সত্যিই অবসর আসন্ন

 পিসিবির তরফে ঢিল ছোঁড়ার চেষ্টা করা হয় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের দিকে। জবাবে এভাবে পাথর ধেয়ে আসবে নিজেদের দিকে, তা বোধ হয় স্বপ্নেও ভাবেননি পিসিবির চিফ এক্সিকিউটিভ ওয়াসিম খান। একইসঙ্গে বোর্ডের তরফ থেকে জানানো হয়েছে আইসিসি সব দিক বিচার বিবেচনা করেই ভারতকে দায়িত্ব দিয়েছে। আর ভারত সব দিক বিবেচনা কপেই সিদ্ধান্ত নেয়। বিসিসিআইয়ের এই জবাবের পর পিসিবি কি জবাব দেয় এখন সেটাই দেখার। কিন্তু বিশ্বকাপ নিয়ে পিসিবি ও বিসিসিআই দ্বন্দ্ব যে ভবিষ্যতে আরও চরমে উঠে, তা একপ্রকার নিশ্চিত করেই বলছেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা।