যত সময় গড়াচ্ছে ততই বিশ্ব জুড়ে ছড়িয়ে পড়ছে আমেরিকায় কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদ। আমেরিকার হোয়াইট হাউস সহ বিভিন্ন জায়গ চলছে প্রতিবাদ। অগ্নিসংযোগও করা হয়েছে বিভিন্ন জায়গায়। ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদ ছড়িয়ে পড়েছে ক্রীড়া বিশ্বেও। ইতিমধ্যেই লিভারপুল প্লেয়াররা মাঝ মাঠে হাঁটু গেড়ে বসে প্রতিবাদ জানিয়েছে। প্রতিবাদ জানিয়েছেন ফুটবলার  জ্যাডন স্যাঞ্চো, আশরাফ হাকিমি, মার্কাস ব়্যাশফোর্ড সহ একাধিক ফুটবলার। বাস্কেটবল কিংবদন্তি মাইকেল জর্ডান অন্যান্য ক্রীড়াবিদদের সঙ্গে যোগ দেন জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর প্রতিবাদ মিছিলে৷ এবার ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদ জানালেন ইউনিভার্সাল বস ক্রিস গেল। একইসঙ্গে ক্রিকেটেও বর্ণবৈষম্য রয়েছে বলে জানান ক্যারেবিয়ান তারকা।

আরও পড়ুনঃজর্জ ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদ লিভারপুল প্লেয়ারদের

জর্জ ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদে ক্ষোভ উগরে দিলেন ক্রিস গেইল। বর্ণবিদ্বেষ কমবেশি সব খেলাতেই দেখা যায়। ফুটবলে এর মাত্রা বেশি হলেও ক্রিকেটেও গায়ের রং নিয়ে প্রায়শই টিপ্পনি শুনতে হয় কৃষ্ণাঙ্গদের। এমনকি বিভিন্ন সময়ে তাঁকেও একাধিকবার বর্ণবিদ্বেষের শিকার হতে হয়েছে। ইনস্টাগ্রামে গেইল লেখেন,‘বাকিদের মতো কৃষ্ণাঙ্গদের জীবনেরও মূল্য রয়েছে। কৃষ্ণাঙ্গ মানুষরাও দামি। বর্ণবাদী মানুষজন নিপাত যাক। কৃষ্ণাঙ্গ মানুষদের বোকা ভাবা বন্ধ হোক। এমনকি আমাদের মতো কৃষ্ণাঙ্গ যেসব মানুষ নিজেদেরকে ছোট ভাবে, তারা হীনমন্যতায় ভোগা বন্ধ করুক। আমি কালো বলে বিশ্বের বহু জায়গায় বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্যের শিকার হয়েছি। বিশ্বাস করুন, এটা সমানে চলে আসেছে।’ দ্য ইউনিভার্স বস আরও লেখেন, 'বর্ণবিদ্বেষ শুধু ফুটবলে নেই, ক্রিকেটেও রয়েছে। এমনকি নিজের দলে আমাকে কালো বলে কোণঠাসা হতে হয়েছে। আমি কৃষ্ণাঙ্গ এবং শক্তিশালী। কৃষ্ণাঙ্গ হিসেবে গর্বিত।' 

 

 

আরও পড়ুনঃআধুনিক ফুটবলে মেসিকেই সেরার শিরোপা দিলেন রোনাল্ডো

আরও পড়ুনঃশুরু হচ্ছে লা লিগা,তার আগে জেনে নিন লিগের ইতিহাসে সেরা ১০ লেজেন্ড কারা

গেইলের পাশাপাশি ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদ ও বর্ণ বৈষম্যের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন আরেক ক্যারেবিয়ান তারকা ড্যারেন সামি। জর্জ ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদ ও অভিযুক্তের কঠোর শাস্তির দাবি জানানোর পাশাপাশি সশ্যাল মিডিয়ায় সামি লিখেছেন,'দীর্ঘদিন ধরেই কৃষ্ণাঙ্গরা অত্যাচার সহ্য করছে। আইসিসি ও অন্য়ান্য বোর্ডরা কী দেখতে পাচ্ছে না আমার মত ব্যক্তিদের সঙ্গে কী হচ্ছে। সকলকে সোচ্চার হওয়া উচিৎ বর্ণ বৈষম্যের প্রতিবাদে। এটা শুধু আমেরিকাতেই হচ্ছে না সর্বত্র হচ্ছে। এটা চুপ করে থাকার সময় নয়। এই সময় সমগ্র ক্রিকেট বিশ্বকে প্রতিবাদ করা উচিৎ। তা নাহলে ভবিষ্যতে আমরা  সকলে এই সমস্যার সম্মুখীন হব।'