বোর্ডের কার্যননির্বাহী সচিব আমিতাভ চৌধুরিকে নোটিস ধরালেন বিসিসিআই পরিচালনার দায়িত্বে থাকা প্রাশাসকরা। জুলাই মাসে আইসিসি ও সেপ্টেম্বরের তিন তারিখ এসিসি’র বৈঠক ছিল লন্ডন ও ব্যাংককে। সেই বৈঠকে বোর্ডের প্রতিনিধিত্ব করার কথা ছিল, কার্যনির্বাহী সচিব অমিতাভ চৌধুরির। কিন্তু একেবারে শেষ মুহূর্তে সেই বৈঠকে উপস্থিত থাকতে পারবেন না বলে জানান অমিতাভ। বোর্ডের কার্যনির্বাহী সচিবকে যে নোটিস পাঠানো হয়েছে তাতে সিওএ জানতে চেয়েছে, ‘সদ্য শেষ হওয়া আইসিসি ও এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের বৈঠকে আপনি উপস্থিত ছিলেন না। শুধু তাই নয় আপনি বোর্ডকে এই বিষয়ে সম্পুর্ণ অন্ধকারে রেখেছেন। আপনার এই আচরণের জন্য আইসিসি ও এসিসি বৈঠকে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড প্রতিনিধিত্ব করতে পারেনি।’ 

বিনোদ রাইয়ের নেতৃত্বে থাকা কমিটি জানিয়েছে জুলাই মাসের ১৪ তারিখ থেকে লন্ডনে বৈঠক ছিল আইসিসি’র। কিন্তু ১২ তারিখ অমিতাভ আইসিসিকে ইমেল করে জানান তাঁর পক্ষে এই বৈঠকে যাওয়া সম্ভব হবে না। একাই ভাবে সেপ্টেম্বরের তিন তারিখ ব্যাংককে ছিল এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের বৈঠক। সেই বৈঠকেও বিসিসিআই’য়ের প্রতিনিধি হয়ে যাওয়ার কথা ছিল আমিতাভর। কিন্তু আগের বারের মতই একেবারে শেষ মুহূর্তে সেই বঠকেও তিনি যেতে পারবেন না বলে জানিয়ে দেন। দু’ক্ষেত্রেই অমিতাভ ভারতীয় বোর্ড  বা সিওএ কে এই বিষয়ে কিছুই জানাননি। 

বোর্ডের কার্যনির্বাহী সভাপতির এহেন আচরণে ক্ষুব্ধ কমিটি অব অ্যাডমিনিস্ট্রেটর। তাই নোটিস পাঠানো হয়েছে অমিতাভ চৌধুরিকে। সাত দিন সময় দেওয়া হয়েছে উত্তর দেওয়ার জন্য। বিভিন্ন বিষয়ে অমিতাভ’র আচরণ নিয়ে ক্ষোভ জমছিল বোর্ডের অন্দরে। কিছুদিন আগেই তাঁকে ভারতীয় দল নির্বাচনী বৈঠকের কনভেনর পদ থেকেও সরিয়ে দিয়েছিল সিওএ। এখন দেখা এই শোকজ নোটিসের উত্তরে অমিতাভ চৌধুরি কি উত্তর দেন।