লাদাখের গালওয়ান ভ্যালিতে ভারত-চীন সেনাদের সংঘর্ষে শহীদ হয়েছেন ২০ জন ভারতীয় জওয়ান। পালটা ভারতীয় বাহিনীর হামলা কমপক্ষে ৪৫ জন চিনা সৈন্য আহত বা নিহত হয়েছে বলে খবর। ২০ জন ভারতীয় জওয়ানের শহীদ হওয়ার ঘটনায়  শোকে মূহ্যমান দেশ। দেশ জুড়ে শহীদদের জানানো হচ্ছে শ্রদ্ধা। চিনকে যোগ্য জবাব দেওয়ারও দাবি জানিয়েছেন অনেকেই। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছেন জওয়ানদের আত্মত্যাগ বিফলে য়াবে না। লাদাখের ঘটনায় চিনা হালার তীব্র নিন্দা করার পাশাপাশি শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেছেন ক্রিকেটার, ফুটবলার থেকে শুরু করে ভারতীয় ক্রীড়া ব্যক্তিত্বরা। 

আরও পড়ুনঃতাহলে কি ২৬ সেপ্টেম্বর থেকেই শুরু হতে চলেছে আইপিএল

লাদাখে চিনের হামলা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে নিজের চাকরী খোয়ালেন আইপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজি দল চেন্নাই সুপার কিংসের চিকিৎসক মধু ঠোঠটাপল্লিল। চেন্নাই সুপার কিংসের ডাক্তার মধু ঠোঠটাপল্লিল টুইট করে লেখেন ,"আমার জানতে ইচ্ছে করছে শহিদ জওয়ানদের কফিনে কি এবার পিএম কেয়ার লেখা থাকবে?" এই পোস্ট ঘিরে শুরু হয় বিতর্ক। প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনা করতে গিয়ে তার এই বিতর্কিত ট্যুইট শোরগোল ফেলে দেয়। নিন্দায় সরব হন অনেকেই। এই পোস্টের প্রতিবাদে সোশ্যাল মিডিয়াতেও ওঠে প্রতিবাদ ও নিন্দার ঝড়। অবিলম্বে ব্যবস্থা নেওয়ারও দাবি জানানো হয়।

আরও পড়ুনঃগালওয়ানে শহীদ ভারতীয় জওয়ানদের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন সচিন,বিরাট,রোহিতদের

শহীদ প্রতি শ্রদ্ধা ও চিনা হামলার তীব্র নিন্দা বাইুচুং,সুনীল,সাইনাদের
 
পরিস্থিতি বেগতিক দেখে তড়িঘড়ি ড্যামেজ কন্ট্রোলে নামে চেন্নাই সুপার কিংস কর্তৃপক্ষ। তাই টিম ম্যানেজমেন্টকে অবগত না-কের বিতর্কিত বিষয়ে টুইট করার খেসারত দিতে হয় সিএসকে চিকিৎসককে৷ চেন্নাই সুপার কিংসের পক্ষ থেকে টুইটারে বিবৃতিতে জানানো হয়,'টিম ডক্টরের সোশ্যাল মিডিয়ায় মন্তব্য তাঁর ব্যক্তিগত মত, এর সঙ্গে চেন্নাই শিবিরের কোনও যোগাযোগ নেই। এমন একটি ট্যুইটের জন্য আমরাও ক্ষমা প্রার্থী ও দুঃখিত। দেশের সেনাদের নিয়ে এমন মন্তব্য এবং বিতর্কিত টুইটের জন্য দল ক্ষমাপ্রার্থী। দলের সঙ্গে তাঁর সমস্ত সম্পর্ক বাতিল করা হল।' স্পোর্টস মেডিসিনে বিশেষজ্ঞ মধু ঠোঠটাপল্লিল আইপিএলের জন্মলগ্ন থেকে চেন্নাই সুপার কিংস দলের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। কিন্তু দেশের সম্মান জড়িত এমনই এক বিতর্কিত টুইটের জন্য চাকরি খোয়াতে হল তাঁকে। যদিও পরে ট্যুইট তিনি ডিলিট করে দিয়েছেন।