ইদানিং ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে একটা প্রশ্নের উত্তর মাঝে মধ্যেই দিতে হয়,ভারতীয় দলের সঙ্গে সব সময় অনুস্কা শর্মাকে দেখা যায় কেন? টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়ের স্ত্রী হওয়ার সুবাদে তিনি বিরাটের সঙ্গে থাকতেই পারেন। কিন্তু দলের বিভিন্ন অনুষ্ঠানেও তাঁকে দেখা যায় কেন? অস্ট্রেলিয়ায় দূতাবাসে একটি অনুষ্ঠানে টিম ইন্ডিয়ার ফোট সেশেন পর্বেও বাকি ক্রিকেটারদের সঙ্গে অনুস্কার উপস্থিতি ভারতীয় ক্রিকেটে বড় প্রশ্ন তুলেছিল। এবারও ক্যারেবিয়ান সফরের গোটা সময়টাই বিরাটের সঙ্গে পাওয়া যায় অনুস্কাকে। কিন্তু বোর্ডের যে একটি নির্দিষ্ট পরিবার নীতি আছে। যে নিয়ম অনুয়ায়ী একজন ক্রিকেটার একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্তই তার পরিবারকে বিদেশ সফরে সঙ্গে রাখতে পারে। তাহলে গোটা ক্যারেবিয়ান সফরে অনুস্কা কি করছিলেন? 
বোর্ডের সামনে এই প্রশ্ন উঠতেই এক বিসিসিআই কর্তা জানিয়ছেন, ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে টিম ইন্ডিয়ার পরিবার নীতি শিথিল করা হয়েছিল। কারণ একটা লম্বা বিশ্বকাপ পর্বের পরই ওয়েস্ট ইন্ডিজ আসতে হয়েছে বিরাটদের। পরিবারের সঙ্গে কিছুটা সময় কাটানোর সযোগটাও পাননি তারা। তাই ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ক্রিকেটারদের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল পরিবারকে সঙ্গে রাখার। কিন্তু অধিকাংশ ভারতীয় ক্রিকেটারের পরিবার তাদের সঙ্গে ছিল না। তবে অনুস্কা শর্মাকে পাওয়া যায় বিরাটের পাশে। বোর্ড কর্তাদের মতে বিরাট দলের অধিনায়ক, তিনি কোনও ভাবেই এমন কিছু করবেন না যাতে দলের ওপর খারাপ প্রভাব পরে। 

বোর্ডের পরিবার নীতি অনুযায়ী একটি লম্বা সফরের প্রথম ২০ দিন ক্রিকেটারদের সঙ্গে তাঁদের পরিবারের সদস্যরা থাকতে পারেবন না। ২০ দিনের পর যে কোনও সময়ে ২১ দিনের জন্য একজন ক্রিকেটারের পরিবার তার সঙ্গে থাকতে পারে। বিশ্বকাপের সময় এক সিনিয়র ক্রিকেটার নাকি দাবি তুলেছিলেন গোটা বিশ্বকাপে পর্বেই স্ত্রীকে সঙ্গে রাখার। কিন্তু বোর্ড সেই অনুমতি দেয়নি।   অনুমতি না মেলার পরও সেই ক্রিকেটারের স্ত্রীকে দেখা যায় ইংল্যান্ডে। সিনিয়র ক্রিকেটারটি কে ? সরাসরি নাম বলা না হলেও ইঙ্গিত প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির দিকে।