শুক্রবার থেকে কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে শুরু হতে চলেছে ভারত-বাংলাদেশ পিঙ্ক বল টেস্ট। তার আগে বুধবার সকালে ইডেনের মাঠে অনুশীলন করল টাইগাররা। গোলাপি বলে মাঠে নামার আগে বাংলাদেশ দলের মূল চিন্তা দলের ব্যাটিং। ইন্দোরে লাল বলে ভারতীয় বোলারদের সামনে নিজেদের মেলে ধরতে পারেনি বাংলাদেশ ব্যাটিং। এবার আবার গোলাপি বলে সামিদের সামলাতে হবে। ইডেনের নেটে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা নিজেদের বোলিংয়ের সামনেই একেবারে স্বাচ্ছন্দে নেই। তাই দিন রাতের টেস্টে সামি ইশান্তদের কী ভাবে সামলানো যায় সেটা ভাবতেই রাতের ঘুম উড়েছে তাদের। 

 

দেখুন ভিডিও - গোলাপি বিপ্লবের প্রস্তুতিতে মগ্ন বাংলাদেশ

ভারতের বিরুদ্ধে মাঠে নামার আগে অনুশীলনে যদিও কোনও ফাঁকি রাখতে চাননি মুসফিকুররা। সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২ পর্যন্ত অনুশীলনের সময় থাকলেও দুপুর প্রায় তিনটে পর্যন্ত মাঠে ছিলেন মুস্তাফিজরা। ভারতকে সামলাতে ইডেনের উইকেটে পেস নয় স্পিন বোলিংয়ে বাড়তি গুরত্ব দিতে চাইছে বাংলাদেশ। তাই স্পিনারদের বাড়তি গুরুত্ব দেখা গেল বাংলাদেশের নেট সেশনে। এদিকে অনুশীলন করার সময় চোট পেয়েছেন তরুণ ক্রিকেটার সইফ হাসান। 

আরও পড়ুন - গ্র্যান্ড ওপেনিং গোলাপি যুদ্ধের, দুই বাংলার শিল্পীদের জমাটি আসর ইডেনে

স্পিন অস্ত্রে বাড়তি সান দিলেও ভারতের বিরুদ্ধে পিঙ্ক বলে টেস্টে সব থেকে বেশি প্রাধান্য দিতে হবে পেস বোলিংয়েই। কারণ পেসাররাই পারেন রোহিত-মায়াঙ্ক-বিরাটদের বাগে আনতে। তবে বাংলাদেশের বোলিং কোচ ড্যানিয়েল ভিত্তোরির কথা থেকেই স্পষ্ট ফ্লাড লাইটের নিচে গোলাপি বলে খেলাটা মোটেও সহজ কাজ হবে না। ইডেনের উইকেট দেখেছেন। সেটাও ২২ গজ দেখে খুশি প্রাক্তন নিউজিল্যান্ড স্পিনার। পাশাপাশি মনে করছেন দিনের শেষ ভাগটাই হবে সব থেকে আকর্ষণীয়। একই সঙ্গে বলছেন স্পিনাররা একটা বড় ভূমিকা পালন করবে এই ম্যাচে।

আরও পড়ুন - গোলাপি বিপ্লবের মাঝেই বৃহস্পতিবার দল নির্বাচন, ফোকাসে রোহিত ও ধাওয়ান