সম্প্রতি ধোনির অবসর নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন একদা মাহির সতীর্থ গৌতম গম্ভীর। প্রশ্নে তুলেছিলেন ধোনির যোগ্যতা নিয়েও। উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান হিসেবে বর্তমানে ধোনির থেকে কে এল রাহুলকে এগিয়ে রেখেছিলেন গম্ভীর। দিন কয়েকের মধ্যেই এবার ধোনির প্রশংসা করলেন ভারতের হয়ে দুটি বিশ্বকাপ জয়ের অধিনায়ক। ভারতীয় ক্রিকেট দলের 'হিটম্যান' রোহিত শর্মার সাফল্যের জন্য ধোনিকেই কৃতিত্ব দিয়েছেন গম্ভীর। রোহিত শর্মার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় ২০০৭ সালে। কিন্তু  অভিষেকের পর তেমন কোনও সাফল্য পাননি মুম্বইকর। ধোনি অধিনায়ক হওয়ার পর ২০১৩ সালে রোহিত শর্মাকে ওপেনিং করার সুযোগ দেন। তারপর থেকেই কেরিয়ারের মোর ঘুরে যায় তার। 

আরও পড়ুনঃজুলাই মাস পর্যন্ত সমস্ত প্রতিযোগিতার উপর স্থগিতাদেশ বাড়াল আন্তর্জাতিক টেবিল টেনিস সংস্থা

গম্ভীরের কথায়, “রোহিত আজ যে জায়গায় পৌঁছেছে, তার পিছনে রয়েছে এমএস ধোনি। নির্বাচক কমিটি ও টিম ম্যানেজমেন্টের কথা বলাই যায়, কিন্তু অধিনায়কের আস্থা না থাকলে বাকি সবকিছুই অর্থহীন। ক্যাপ্টেনের উপরই তো সবকিছু নির্ভর করে। লম্বা একটা সময় ধরে ধোনি যে ভাবে পাশে থেকেছে রোহিত শর্মার, তা আর কোনও খেলোয়াড় পেয়েছে বলে আমার মনে হয় না।”  সিনিয়র ক্রিকেটারদের সমর্থন থাকলেই কোনও ক্রিকেটার সফল হতে পারে। বাঁ-হাতি ওপেনার বলছেন, “আশা করব এই প্রজন্মের তরুণ ক্রিকেটাররা, অর্থাৎ শুভমন গিল, সঞ্জু স্যামসনরা একই ধরনের সহযোগিতা পাবে। আর এখন তো রোহিত সিনিয়র। চাইব, ও যেন তরুণদের পাশে থাকে সব সময়। আস্থা ও ভরসা থাকলে এক জন ক্রিকেটার যে কোন উচ্চতায় পৌঁছতে পারে, তার সেরা উদাহরণ হল রোহিত। মহেন্দ্র সিংহ ধোনির একটা ভাল দিক হল যে রোহিতের কথা সব সময় বলতে থাকা। ও দলে না থাকলেও গ্রুপের বাইরে রাখা হত না। ওকে কখনও সাইডলাইন করা হয়নি। আশা করব, বিরাট কোহালি ও রোহিত শর্মা একই ভাবে তরুণদের লালন-পালন করবে, ঠিক যে ভাবে ধোনি ওদের করেছিল।”

আরও পড়ুনঃটোকিও অলিম্পিক নিয়ে আশাবাদী আইওএ,২০৩২ অলিম্পিক্সের জন্য ঝাঁপাতে চায় ভারত

আরও পড়ুনঃতিনবার আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন মহম্মদ সামি,কারণ জানালেন ভারতীয় পেসার

গম্ভীরের মুখে ধোনির প্রশংসা শুনে অবাক হয়েছেন অনেক ক্রিকেট বিশেষজ্ঞই। দিন কয়েক আগে মাহির অবসর নিয়ে যে বিতর্কিত মন্তব্য গৌতি করেছিল তারপর আবার এত প্রশংসার কারণ কী, সেই প্রশ্নই তুলেছে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। অপরদিকে গৌতম গম্ভীরের বক্তব্য নিয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও মন্তব্য করেননি রোহিত শর্মা। কিন্তু ধোনির সমালোচনার কিছু দিনের মধ্যেই দোনির প্রশংসা করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ফের শিরোনামে চলে এসেছেন গৌতম গম্ভীর।