আধুনিক অলিম্পিকের ১২৪ বছরের ইতিহাসে প্রথমবার ১ বছর পিছিয়ে গিয়েছে  প্রতিযোগিতা। গত ৩০ মার্চ অলিম্পিকের পরবর্তী ক্রীড়াসূচি ঘোষণা করে জানানো হয়, আগামী বছর ২৩ জুলাই শুরু হবে অলিম্পিক। শেষ ৮ আগস্ট।  সঙ্গে এও বলা হয় যে অলিম্পিকের ক্রীড়াসূচিতে কোনও কাটছাঁট করা হবে না। কিন্তু বিশ্ব জুড়ে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ না কমায় ও ভ্যাকসিন আবিষ্কার না হওয়ায় নতুন করে তৈরি হয় জটিলতা।  ১৬ মাস পিছিয়ে দেওয়ার পরও আদৌ পরের বছর অলিম্পিক হবে কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিলেন খোদ অলিম্পিক কমিটির প্রেসিডেন্ট ইয়োশিরো মোরি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে অলিম্পিক বাতিলের আশঙ্কার কথাও জানিয়েছেন অলিম্পিক কমিটির প্রেসিডেন্ট। শুধু অলিম্পিক কমিটির প্রেসিডেন্ট ইয়োশিরো মোরি নয়, এর আগে পরের বছর অলিম্পিক আয়োজন নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন, টোকিয়ো অলিম্পিক্স আয়োজক কমিটির চিফ এগজিকিউটিভ অফিসার  তোশিরো মুতো। যদিও পরের বছর অলিম্পিক হওয়া নিয়ে একশো শতাংশ আশাবাদী  ভারতীয় অলিম্পিক সংস্থার প্রেসিডেন্ট ও আর্ন্তজাতিক অলিম্পিক্স কমিটির সদস্য নরিন্দর বাত্রা। একইসঙ্গে ২০৩২ সালে অলিম্পিকের অন্যতম দাবিদার হবে ভারত। সেই কথাও জানিয়েছেন বাত্রা।

আরও পড়ুনঃতিনবার আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন মহম্মদ সামি,কারণ জানালেন ভারতীয় পেসার

প্রতিষেধক না পাওয়া গেলে আগামী বছরও সেই অলিম্পিক্স হবে কি না তা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে। এই আবহেই ভারতীয় অলিম্পিক সংস্থার প্রেসিডেন্ট ও আর্ন্তজাতিক অলিম্পিক্স কমিটির সদস্য নরিন্দর বাত্রা বলে দিলেন, আগামী বছর নিশ্চিত ভাবেই টোকিয়োতে হবে অলিম্পিক্স। অনলাইনে ভারতীয় অ্যাথলেটিক্স সংস্থার বিশেষ সাধারণ সভায় বাত্রা বলেন, ‍‘‍‘আগামী বছর প্রতিষেধক পাওয়া না গেলে অলিম্পিক্স হবে না। এটা কেউ কেউ বলছেন। এর সঙ্গে আমি সহমত নই। নিশ্চিত ভাবেই আগামী বছর টোকিয়োতে হবে অলিম্পিক্স। সেই মতোই প্রস্তুতি নিচ্ছি আমরা। বিশ্বস্ত সূত্র, আন্তর্জাতিক ক্রীড়া জগতের কর্তা-ব্যক্তিদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগের সুবাদেই আগামী বছর অলিম্পিক্স হওয়ায় আশাবাদী আমি। বিশ্বাস রয়েছে, আগামী সেপ্টেম্বর থেকে অক্টেবরের মধ্যে এর প্রতিষেধকও বেরিয়ে যাবে।’’ এ দিকে, বাত্রা আরও জানান, করোনা অতিমারি শেষ হলেই ২০৩২ সালের অলিম্পিক্সের জন্য দাবি জানাবে ভারত। ২০১০ সালে কমনওয়েলথ গেমস আয়োজন করেছিল ভারত। সেখান থেকে ভারত শিক্ষা নিয়েছেন বলে জানান বাত্রা। ২০২৬ সালের যুব অলিম্পিক্স পাওয়ার ক্ষেত্রে ভারতের সঙ্গে দৌড়ে রয়েছে তাইল্যান্ড, রাশিয়া ও কলম্বিয়া। 

আরও পড়ুনঃকরোনা টেস্টের পরই অনুশীলনে ফিরতে পারবেন মেসি, সুয়ারেজ, গ্রীজম্যানরা

আরও পড়ুনঃকী নাম রেখেছেন নিজের দ্বিতীয় কন্যা সন্তানের,জানালেন স্বয়ং সাকিব আল হাসান

অলিম্পিকের নতুন তারিখ ঘোষণার পর নতুন করে আশায় বুক বেধেছিলেন বিশ্ব জুড়ে অ্যাথলিটরা। কিন্তু অলিম্পিক কমিটির একাধিক কর্তার অলিম্পিক নিয়ে নিরাশাজনক বক্তব্য শুনে অনেকটাই হতাশ হয়ে পড়েছিলেন ভারতীয় অ্যাথলিটরা। তবে ভারতীয় অলিম্পিক সংস্থার প্রেসিডেন্ট ও আর্ন্তজাতিক অলিম্পিক্স কমিটির সদস্য নরিন্দর বাত্রার বক্তব্যে কিছুটা আশার আলো দেখছেন অ্যাথলিটরা। একইসঙ্গে ২০৩২-এর অলিম্পিকের জন্য ভারতের দাবি জানানোর প্রসঙ্গকেও সমর্থন ও সাধুবাদ জানিয়েছেন সকলে।